প্রয়াত শামসুল আলম ও শহীদ মোসাদ্দেকেে কবর জিয়ারতে গেলেন বিএনপি নেতা মুজিবুর রহমান

 রতন দাশ,  সাতকানিয়া প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় সাতকানিয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সাতকানিয়া উপজেলা বি এন পির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নগরীর বৃহত্তম ব্যবসায়িক সংগঠন তামাকুমন্ডি লেন বনিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব শামসুল আলম ও মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে মাদক কারবারির হাতে নির্মমভাবে খুন হওয়া শহীদ মোসাদ্দেকুর রহমানের কবর জিয়ারতে গেলেন উপজেলা বিএনপির একটি দল।
মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ২০ সদস্যের একটি দল আসরের নামাজের পর জিয়ারতে অংশগ্রহণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা যুবদলের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোজাম্মেল হক, দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর, বি এন পি নেতা ফরিদুল আলম ভুট্টো, বি এন পি নেতা ফরিদুল আলম মেম্বার, সাতকানিয়া সদর ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মোঃ ফোরকান, যুবনেতা রাসেল খান, মহিউদ্দিন, শাহাবুদ্দিন, আক্তার, ছাত্তার ছাত্রনেতা করিম, নাজমুল ও মাঈনুদ্দীন সহ স্থানীয় বিএনপি ও অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এসময় মুজিবুর রহমান বলেন, মাদক সমাজের জন্য একটা বড় অভিশাপ। তবে বেশীর ভাগ লোক সেটা না বুঝতে পারলেও মোসাদ্দেকদের মত কিছু যুবক সেটা বুঝতে পেরে আন্দোলনে নেমেছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় মাদক কারবারির হাতেই মোসাদ্দেককে খুন হতে হল।
এলাকাবাসীর প্রতি অনুরোধ জানাই মাদকের বিরুদ্ধে যেন প্রতিবাদ অব্যাহত থাকে। আমরা দলমত নির্বিশেষে মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করি এবং সমাজকে অভিশাপ মুক্ত করি। প্রয়াত শামসুল আলমকে স্মরন করে তিনি বলেন, শামসুল আলম যেমন একজন দক্ষ সাংগঠনিক ব্যক্তি ছিলেন তেমনি একজন সফল ব্যবসায়িও ছিলেন। করোনা আামাদের একজন কাছের মানুষকে আমাদের কাছ থেকে কেড়ে নিল। আমরা তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। এসময় তিনি শহীদ মোসাদ্দেক ও শামসুল আলমের পরিবারের পাশে যে কোন সহযোগিতায় সাতকানিয়া উপজেলা বি এন পি পাশে থাকবে বলে জানান।