প্রেসক্লাব ও কাট্টলীতে স্থাপিত হলো করোনা টেস্টিং বুথ

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ  এখনই সময় আর্তমানবতার সেবায় হাতকে প্রসারিত করা মেয়র চট্টগ্রাম ৪ জুন-২০২০ খ্রি. চট্টগ্রাম সিটি কর্পারেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, বিশ্বময় করোনার থাবায় বাংলাদেশে তথা চট্টগ্রামেও এর সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে।

সাম্প্রতিক সংক্রমণের হিসাবে চট্টগ্রামকে কোভিড হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। অন্যদিকে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে যারা এই সময়ে রোগীদেরকে স্বাস্থ্যসেবা দেয়ায় গড়িমসি করছে এবং তাদের অবহেলার কারণে রোগীরা মৃত্যুবরণ করছে।

তারা আসলে শাস্তিযোগ্য কাজ করছে। আমি আশা করি বেসরকারি হাসপাতালগুলোসহ সবাই এহেন আচরণ থেকে বিরত থাকবেন। তিনি বলেন, এখনই সময় আর্তমানবতার সেবায় হাতকে প্রসারিত করা। তবে অনেক ডাক্তার, নার্সসহ স্বাস্থ্যসেবাকর্মীরা এই পরিস্থিতির মধ্যেও নিজের জীবনকে বিপন্ন করে মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন।

চিকিৎসাকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয় মানুষকে সেবা দেয়ার জন্য কিন্তু ইদানিং বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানা যাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঢালাওভাবে হাঁচি-কাশি,জ্বর ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভোগা রোগীদের ফিরিয়ে দেয়ায় মানুষজন রাস্তাঘাটে মারা যাচ্ছেন।

এগুলো অত্যন্ত দুঃখজনক, প্রাইভেট বা যেকোন হাসপাতালের এ ধরণের আচরণ অগ্রহণযোগ্য। জাতির এ ক্রান্তিলগ্নে বেশি বেশি চিকিৎসাকেন্দ্র ও চিকিৎসাসেবা সহজতর করার কোন বিকল্প নেই। মেয়র জানান চসিকের উদ্যোগে কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করতে বুথ স্থাপন করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রেসক্লাব ও উত্তর কাট্টলী হাসেম নাজির হেলথ সেন্টারে করোনা টেস্টিং বুথের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে মেয়র এসব কথা বলেন। এ সময় প্যানেল মেয়র ড. নেছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, প্রধান স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী,

প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, সহ সভাপতি সালাউদ্দিন রেজা, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম, গ্রন্থগার সম্পাদক রাশেদ মাহমুদ, আপ্যায়ন সম্পাদক আইয়ুব আলী, দেবদুলাল ভৌমিক, ব্র্যাকের প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. রেশমা খানম, আঞ্চলিক ম্যানেজার মো. হানিফ উদ্দিন, আকবর শাহ থানার আওয়ামী লীগের আহবায়ক মো. লোকমান আলী,

আকবর শাহ  মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. নুর উদ্দিন, বিশিষ্ট শ্রমিক লীগ নেতা শফি বাঙালি, আকবরশাহ থানা সাধারণ সম্পাদক কাজী আলতাফ উপস্থিত ছিলেন। বেসরকারি সংস্থার (ব্রাক) সহায়তায় কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করতে উন্নত প্রযুক্তির কিওস্ক এর মাধ্যমে স্থাপিত হচ্ছে। বেসরকারি সংস্থা ব্রাক এসব বুথ থেকে নমুনা সংগ্রহ করবে এবং সেগুলো পরীক্ষাগারে পাঠানো হবে।

এ প্রসঙ্গে সিটি মেয়র আরো বলেন, আমরা অন্যান্য বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এ জাতীয় ধারণা নিয়ে এগিয়ে আসতে উৎসাহ দিচ্ছি। অবশ্যই, এই ধরনের সুযোগ-সুবিধা করোনা টেস্ট বাড়াতে বাড়তি সুবিধা দেবে। তবে জ্বর, কাঁশি, সর্দি ও করোনা উপসর্গ না থাকলে সে ব্যক্তি পরীক্ষা করার প্রয়োজন নেই। সুতরাং সুস্থ ব্যক্তিরা অহেতুক ভীর না করার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান মেয়র।

এই বুথগুলো প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত গড়ে ৩০জনের নমুনা সংগ্রহ করবে। তিনি জানান, এই বুথের মাধ্যমে নমুনা সংগ্রহ করতে জনবলও কম লাগবে। সন্দেহভাজন রোগীদের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করার সময় এই বুথ স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতিটি নমুনা সংগ্রহ করার পর তাদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা মূলক সরঞ্জাম (পিপিই) বদলাতে হবে না।

নগরীর বিভিন্ন স্পটে এ ধরনের মোট ৬টি নমুনা সংগ্রহ বুথ স্থাপন করা হচ্ছে এবং আমরা আশা করছি শিগগিরি কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ কাজে গতি আসবে। কাঁচে ঘেরা কেবিনের মতো দেখতে নমুনা সংগ্রহ বুথটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যাতে স্বাস্থ্যকর্মীরা যেখানে অবস্থান করেন সেখানকার পরিবেশ সবসময় জীবাণুমুক্ত থাকে।

স্বাস্থ্যকর্মীরা বুথের বাইরে দাঁড়ানো মানুষের শরীর থেকে পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করেন এর সঙ্গে থাকা গ্লাভস দিয়ে। ফলে তারা থাকেন পুরোপুরি নিরাপদ।  বিভাগের কর্মকর্তাদের মতে, প্রতিবার নমুনা সংগ্রহের পর গ্লাভস এবং যে চেয়ারে বসিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হলো তা জীবাণুমুক্ত করা হবে।

পরীক্ষার জন্য বারবার হটলাইনে কল করতে হবে না বিধায় এটা মানুষের দুর্ভোগও কমাবে। আক্রান্তরা নিজেরাই পরীক্ষার জন্য বুথে যেতে পারবেন।