প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন দেশের শ্রমজীবী মানুষ

মোঃ মনির হোসেন: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন দেশের শ্রমজীবী মানুষ। তাদের মধ্যে অন্যতম হকার শ্রেণি। কারণ করোনার প্রভাবে রাজধানীর সব কিছু বন্ধ থাকায় রাস্তায় মানুষ নেই, খুলতে দেওয়া হচ্ছে না হকার নির্ভর কাজ। এতে করে তাদের রোজগার একেবারেই বন্ধ। সরকারি-বেসকারি কোনো সহায়তাও তাদের কাছে পৌঁছাচ্ছে না। ফলে পরিবার নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে দুর্বিষহ সময় কাটাতে হচ্ছে তাদের। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার জীবন জীবিকা নির্বাহ করা হকারের সঙ্গে কথা বলে এমন চিত্র পাওয়া গেছে। হকার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রাজধানীতে দুই লক্ষাধিক হকার আছেন। এসব শ্রমজীবী হকাররা যেহেতু সরাসরি সরকারি আর্থিক প্রণোদনার আওতায় নেই আবার শ্রম আইনের বাইরে থাকায় পেনশন কিংবা ন্যুনতম ক্ষতিপূরণের সুযোগও নেই। ফলে স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে করোনা পরিস্থিতিতে আয় হারিয়ে এসব মানুষ এখন টিকে আছেন কিভাবে?

কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশাল আকারের এক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। সেখানে অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমজীবীদের মৌলিক চাহিদা পূরণে সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। এছাড়া বিনামূল্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, বয়স্ক ভাতা কিংবা এ ধরণের কর্মসূচির আওতায় এসব মানুষকে নিয়ে আসার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া আগের থেকে এসব মানুষের সহায়তায় সরকারের উদ্যোগ আছে ঠিকই কিন্তু সেই উদ্যোগের আওতা এখন কিভাবে বাড়ানো হয় তার উপরই নির্ভর করছে। হঠাৎ করে উপার্জন হারানো মানুষেরা এতে করে কতটা উপকার পাবেন সেটিই এখন দেখার বিষয়।