পৃথক ঘটনায় সাভারে অর্ধশতাধিক চিহৃত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব ও পুলিশ

মৃদুল ধর ভাবন, আশুলিয়া প্রতিনিধিঃ পৃথক ঘটনায় ঢাকার শিল্পাঞ্চল সাভারে বেশ কয়েকজন চিহৃত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব ও পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।
শনিবার সকালে তাদেরকে আটক করার বিষয়টি নিশিচত করেছেন র‌্যাব ও পুলিশের কর্মকর্তারা। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জানায়, গতকাল বিকেলে সাভারের আমিনবারের সালেহপুর এলাকা থেকে কুখ্যাত নৌ পথের ডাকাত গাংচিল বাহিনীর প্রধান সালাউদ্দিন ও তার দুই সহযোগীকে অস্ত্র গুলি,ইবায়াসহ আটক করে র‌্যাব ৪।

পরে তাদেরকে সাভার মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। অন্যদিকে আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিয়াজুল ইসলাম নামের এক শীর্ষ সন্ত্রাসীকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করেছে র‌্যাব ৪।
এছাড়া সাভারের ভাকুর্তা এলাকায় আতাউর প্লাজা থেকে চুরি হওয়া একটি পাঁচ লক্ষ টাকার মোটরসাইকেল সহ দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আজ গভীর রাতে আটক দুই যুবককে নোয়াখালী জেলায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেন সাভার মডেল থানা ভাকুর্তা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্য এস আই শাহ আলম। আটক দুই যুবকের নাম সামছুল ইসলাম সবুজ ও সাকিব আল যুবায়ের।

গেল কয়েকমাস আগে ভাকুর্তা এলাকা থেকে দুইটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। সেসময় ওই এলাকায় চোরের উপদ্রব্যে এলাকাবাসী নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন। পরে ওই এলাকায় পুলিশের তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়।
এদিকে আজ ভোর রাতে ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও ঢাকায় অভিযান চালিয়ে জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম এর দুই সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব ৪। আটক দুই জঙ্গির নাম মোকসেদুল ও আতাহার আলী। এসময় তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

এছাড়াও গত কয়েকদিনে সাভার,আশুলিয়া,ধামরাই ও রাজধানীর মিরপুর থেকে ইয়াবা,ফিন্সিডিলসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে আটক করে র‌্যাব ও পুলিশ। রাজধানীর কাছের এসব এলাকায় অপরাধকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনায় ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর থাকায় তাদের প্রতি মানুষের যেমন আস্তা বেড়েছে এবং এলাকাবাশীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

এসময় আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্রিষ্ট থানায় মামলা শতাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় আটককৃতরা সবাই বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।
এবিষয়ে র‌্যাব ৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান বলেন,অপরাধকারীদের কোন ছাড় নয় তাদের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে।