পুলিশের কড়াকড়ি তৎপরতায় চুনারুঘাটে চা বাগানের লিগ্যাল এডভাইজারের জানাযা

এম এস জিলানী আখনজী, চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ চুনারুঘাটে চা বাগানের লিগ্যাল এডভাইজার, প্রবীন আইনজীবি, বঙ্গবন্ধু পরিষদের জেলা সভাপতি এডভোকেট আবুল খয়ের এর জানাযার নামাজ সীমিত আকারে সম্পন্ন হয়েছে।

থানা পুলিশের কড়া টহল থাকায় জনপ্রিয় ওই ব্যক্তির জানাযাতে মানুষের ঢল নামতে পারেনি। মরহুমের বাড়ির উঠানে আত্মীয়-স্বজনসহ সামান্য কিছু মানুষ সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে জানাযায় অংশ নেন।

উপজেলার জারুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা আবুল খয়ের ভারতের একটি হাসপাতালে গত শনিবার (১৮ই এপ্রিল) মৃত্যুবরন করেন। তার মরদেহ সোমবার (২০ এপ্রিল) একটি বিমানে করে দেশে আনা হয়। এলাকায় সর্বজন প্রিয় আবুল খয়েরকে নিজ গ্রামে কবরস্থ করা হবে এমন খবরে পুলিশ প্রশাসন নড়েচড়ে বসে।

চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজমুল হক ও গাজীপুর ইউনিয়নের পুলিশিং বিট অফিসার শেখ আজহার ও স্থানীয় চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির খানসহ এলাকার মানুষের সমন্বয়ে বেশ কয়েকটি মতবিনিময় করা হয় জানাযার নামাজ নিয়ে।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে চুনারুঘাট থানা পুলিশ গাজীপুর ইউনিয়নের সব কয়টি প্রবেশ পথে অবস্থান নেয়। এতে মুলত অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে পুরো ইউনিয়ন। দুপুর ১২ টার দিকে হবিগঞ্জ থেকে লাশবাহি একটি গাড়ীতে করে মরহুমের মরদেহ জারুলিয়া গ্রামে নিয়ে আসা হয়। লাশবাহি গাড়ীর সাথে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী পুলিশ সুপার ছিলেন।

দুপুর ১টায় সীমিত পরিসরে মরহুমের জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয় এবং পারিবারিক কবরস্থানে আবুল খয়েরকে দাফন করা হয়। উল্লেখ্য, সম্প্রতি বি-বাড়িয়া জেলায় এক মাওলানার জানাযায় লক্ষাধিক মুসল্লীর সমাগম ঘটে এবং এ নিয়ে দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড় উঠার কারনে পুলিশ কড়াকড়ি আরোপ করতে বাধ্য হয়েছে বলে জানান- থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজমুল হক।