পাটকল শ্রমিকদের অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি কয়েকজন

মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) পঞ্চম দিনে গড়ালো রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের অনশন। দাবি আদায়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কাফনের কাপড় মাথায় বেধে অনশন শুরু করেছেন নরসিংদীর শ্রমিকরা। তাদের সাথে যোগ দিয়েছেন পরিবারের সদস্যরাও। বকেয়া বেতন ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে অনশন পালন করছেন চট্টগ্রাম, খুলনা ও রাজশাহীর পাটকল শ্রমিকরাও।
তীব্র শীতের মধ্যেই তাঁবু টানিয়ে মিল গেটে অবস্থান করছেন অনেক শ্রমিক। বিভিন্ন স্থানে কয়েকজন অসুস্থ হওয়ার খবর মিলেছে। তাদের ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। এখন পর্যন্ত পাটকল মালিক কিংবা বিজেএমসি কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোন আশ্বাস পাননি শ্রমিকরা।
এরআগে, দাবি আদায়ে ১০ ডিসেম্বর আমরণ অনশন শুরু করেন শ্রমিকরা। ৫ দিন পর সমাধানের আশ্বাসে কর্মসূচি স্থগিত করেন তারা। শ্রমিকদের দাবি, প্রশাসনের সাথে দফায় দাফায় আলোচনা পরও মেলেনি সমাধান। ফলে ১৪ দিন পর আবারও কর্মসূচিতে নেমেছেন সবাই। এরপরও যদি দাবি বাস্তবায়ন না হয় তাহলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুশিয়ারী দিয়েছেন পাটকল শ্রমিকরা।
মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত নয়টি পাটকলের শ্রমিকরা গত ২৩ নভেম্বর থেকে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সভা, বিক্ষোভ মিছিলসহ ধর্মঘটের মত কর্মসূচি পালন করে আসছে। গত ১০ ডিসেম্বর দেশের ২৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের মধ্যে ১২টির শ্রমিকরা আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করেন।
এরপর গত ১৪ ডিসেম্বর কর্মসূচি তিনদিনের জন্য স্থগিত করে দাবি মানার আহ্বান জানানো হয়। এরপরও দাবি পূরণ না হওয়ায় গত ২৬ ডিসেম্বর তারা ফের অনশনে যাওয়ার হুমকি দেন।