পরিবহন সেক্টরে দৈনিক হয় কোটি কোটি টাকা চাঁদাবাজি

মোঃমোস্তাফিজুর রহমান রুমনঃ পরিবহন সেক্টরে দৈনিক কোটি কোটি টাকা চাঁদাবাজি হয়। বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীরা একসঙ্গে এই চাঁদাবাজি করে। এমনকি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও জড়িত এর সঙ্গে ।  পরিবহন সেক্টরের চাঁদাবাজি বন্ধ করতে পারলেই সব সমস্যার সমাধান হবে।

বুধবার (২০নভেম্বর) বেলা ১২টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে জেলহত্যা দিবস উপলক্ষ্যে এবং শেখ রাসেলের জন্মদিনকে ‘শিশু রক্ষা দিবস’ হিসেবে পালন করার দাবিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।বলেন,কোনো ঘাতক চালক নিজের ইচ্ছেমতো কাউকে হত্যা করবে, এটা দেশের জনগণ মেনে নেবে না। তারা এখন সুযোগ বুঝে ধর্মঘট করছে। যারা দেশ ও দেশের মানুষকে বিব্রতকর পরিস্থতিতে ফেলছে, তাদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। দেশের জনগণকে যারা জিম্মি করছে, শক্ত হাতে তাদের মোকাবিলা করা হবে। ক্যাসিনোকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের যেমন কোনো ছাড় দেওয়া হয়নি, তেমনি এদেরকেও ছাড় দেওয়া হবে না,’ যোগ করেন তিনি।

তিনি এসময় ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবসের বিভিন্ন স্মৃতিবিজড়িত তথ্য তুলে ধরেন। একইসঙ্গে শেখ রাসেলের জন্মদিনকে ‘শিশু রক্ষা দিবস’ হিসেবে পালন করার দাবি সংসদে উপস্থাপন করবেন বলেও জানান তিনি।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কার্যনির্বাহী সভাপতি ফালগুনী হামিদ। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতারা।