“পথ শিশুরা আমাকে মা বলে ডাকে” লাকী আহমেদ

ব্যাস্ত এই শহুরে নানা রকমের মানুষের দেখা মেলে। কেউ নিজেকে নিয়ে ব্যাস্ত থাকে আবার কেউ অন্যের কথা ভেবে নিজের যা আছে তার সবটুকুই বিলিয়ে দিতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন।

শহরের এই যাপিত জীবনে যখন একজন মানুষ নিজের শত ব্যস্ততার মাঝেও অসহায় শিশুদের সুখ দু:খ ভাগ করে নেয় তাকে সাদামনের মানুষ বলাও খুব কম হয়ে যাবে। বলছি লাকী জাগরণ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লাকী আহমেদের কথা।

তিনি বলেন, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য, কোটি পতি বা শিল্পপতি হতে হয় না।” ইচ্ছা শক্তিটাই যথেষ্ট”

সেই তাড়না থেকে তিনি গড়ে তুলেন লাকী ফাউন্ডেশন। এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে অসহায় শিশুদের বিভিন্ন রকম সাহায্য সহোযোগিতা করে থাকেন তিনি পাশাপাশি এই অসহায় শিশুদের তিনি লেখা পড়ারও সুযোগ করে দেন তিনি। লাকী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লাকি আহমেদ বলেন “পথ শিশুরা আমাকে মা বলে ডাকে এটা আমার পরম পাওয়া”।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকি ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে লাকি জাগরণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা। এদিন সকালে রাজধানীর ধানমন্ডীর ২৭ নম্বরে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এর আয়োজন করে সংগঠনটি।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে আলোচনা ও অসহায় শিশুদের নিয়ে কেক কেটে মুজব বর্ষ পালন করেন আয়োজকরা। এরপর ধানমন্ডীর ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রধা জানায় ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন লাকী জাগরণ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লাকী আহমেদ, উপদেষ্টা চিত্র নায়িকা অঞ্জনা।

এবং জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ও ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা কায়সার আহমেদ সহ সংগঠনটির আরো অনেকে।

পৃথিবীর প্রত্যেক মানুষই নিজের অধিকার নিয়ে বেঁচে থাকবে। সেটাই স্বাভাবিক। তবে আমাদের সমাজের প্রতিবন্ধীরা কেন অবহেলিত সে বিষয়টিও ভাবায় তাকে।