পঁয়ত্রিশ টাকার নিচে সবজি নেই চট্টগ্রামের কাঁচাবাজারে !!

মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের কাঁচাবাজারে পয়ত্রিশ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। সবচেয়ে বেশি বিক্রির তালিকায় থাকা আলু ৩০ টাকায় মিলবে, তবে একসঙ্গে কিনতে হবে তিন কেজি।

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকালে চকবাজার ও রেয়াজউদ্দিন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলছে বেচাকেনা। দূরত্ব বজায় রাখার বালাই নেই ক্রেতা-বিক্রেতাদের মাঝে।

বাজারে মিলছে শীতকালীন সবজি বাঁধাকপি, ফুলকপি, শিম ও মুলা। কেজিপ্রতি ১শ টাকার বেশি দাম চাওয়ায় এবং এসব সবজি অপরিপক্ক দেখে কিনতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না ক্রেতারা।

শুধুমাত্র মিষ্টি কুমড়া প্রতিকেজি ২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আলু ৩৫ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, কাঁকরোল ৫০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, শসা ৩৫ টাকা, টমেটো ১শ টাকা, ঝিঙ্গা ৪৫-৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, গাজর ৭০ টাকা, বেগুন ৪০ টাকা, করলা ৫৫-৬০ টাকা, লাউ ৩৫-৪০ টাকা, কাঁচা পেপে ৪০ টাকা, পুঁইবিচি ৮০ টাকা, ছোট কচু ৪০ টাকা, কাঁচামরিচ ১৩০-১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে নগরের কাঁচাবাজারগুলোতে।

এদিকে বাজারে সামুদ্রিক মাছের মধ্যে লইট্যা ১০০-১২০ টাকা, রূপচাঁদা ৮শ টাকা, ৫০০ গ্রাম ওজনের হিমায়িত ইলিশ ৫৫০-৬শ টাকা এবং ১ কেজি ওজনের দাম চাওয়া হচ্ছে ১ হাজার টাকা। এছাড়া মাঝারি আকারের চিংড়ি সাড়ে ৫শ টাকা, তেলাপিয়া ১৩০-১৫০ টাকা, মায়ানমারের রুই ২৩০ টাকা, দেশি রুই ২৫০-২৮০ টাকা, বাটা ২৭০ টাকা, কাতাল ৩শ টাকা, পাবদা সাড়ে ৩শ টাকা, কেচকি ২৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বেড়েছে ডিমের দামও। দেশি হাঁস ও মুরগীর ডিম প্রতি ডজন ১৫০ টাকা ও ফার্মের ডিম বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা দরে। তবে গত সপ্তাহের মতোই অপরিবর্তিত রয়েছে মাছ-মাংসের দাম।

বাজার করতে আসা মোঃ সাইফুল বলেন, একশ টাকা দিয়ে তিন রকমের সবজি এককেজি করতে কিনতে গেলেও পাওয়া যাচ্ছে না। দিন দিন দাম বাড়ছেই।

বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে সবজির পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও দাম ঊর্ধ্বমুখী। এর আগে টানা বৃষ্টির কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যা হওয়ায় সবজিক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। এছাড়া পরিবহন খরচও বেড়েছে। যার প্রভাব পড়েছে বাজারে।