নোয়াখালীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২৩ মামলার আসামি শাহাদাত নিহত

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২৩ মামলার আসামি শাহাদাত হোসেন স্বপন (৩৯) নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় পাইপ গান, ৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। 
রোববার (২৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ছোটধলী নদীর পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাহাদাত হোসেন স্বপন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের বেলায়েত হোসেনের ছেলে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান জানান, পুলিশের তালিকাভুক্ত মোস্ট ওয়ান্টেড আসামি ও আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য শাহাদাত হোসেন স্বপনকে পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে খুঁজছিল। রোববার সন্ধ্যায় তাকে বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় সে পুলিশ কে জানায় তার দলের সদস্যরা ডাকাতি করার জন্য কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ছোটধলী নদীর পাড়া এলাকায় অবস্থান করছে।

পরে থানা ও ডিবি পুলিশ তাকে নিয়ে সেখানে গেলে তার সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় ডাকাত সদস্য স্বপন গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বন্দুকযুদ্ধ চলাকালে পুলিশের ওসি তদন্ত মোস্তাফিুজুর রহমানসহ ছয় জন আহত হয়।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় পাইপগান, ৯ রাউন্ড কার্তুতের গুলিসহ বেশ কিছু ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার করে।

ওসি আরিফুর জানান, শাহদাত হোসেন স্বপনের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় ২৩টি মামলা রয়েছে।