সিলেটে ওসমানী হাসপাতালের ৭৮ ইন্টার্ন চিকিৎসক কোয়ারেন্টিনে

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক ইন্টার্ন চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর মোট ৭৮ জনকে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘সবাইকে হাসপাতালের ইন্টার্ন হোস্টেলে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে বৃহস্পতিবার আটজনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। বাকিদের ধাপে ধাপে পরীক্ষা করা হবে।’

গত বুধবার হাসপাতালের এক ইন্টার্ন চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। তিনিও ইন্টার্ন হোস্টেলে রয়েছেন। তিনি সম্প্রতি গাজীপুর থেকে সিলেট ফেরেন। সিলেটে আসার পর তাঁর নমুনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট করোনা পজেটিভ আসে।

এর আগে, গত ১৩ এপ্রিল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক প্রসূতির করোনা শনাক্ত হলে ১৯ চিকিৎসক ও ১৪ নার্সসহ ৪৪ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।

এদিকে, বৃহস্পতিবার আরেক প্রসূতির করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাঁর সংস্পর্শে যেসব চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী এসেছেন তাদেরও কোয়ারেন্টিন করা হবে বলে জানিয়েছেন হিমাংশু লাল রায়।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক আরো বলেন, সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের স্টোর কিপারের করোনা শনাক্তের পর তাঁকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁর পরিবারের তিন সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছে।

সিলেট বিভাগে নতুন করে আরো ১৬ জন শনাক্ত হওয়ায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৪৯ জন। এর মধ্যে হবিগঞ্জ জেলায় ২৬, সিলেটে ১২, সুনামগঞ্জে ৮ এবং মৌলভীবাজারে ৩ জন আক্রান্ত রয়েছেন। তাদের মধ্যে ওসমানী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. মঈন উদ্দিন ও মৌলভীবাজারের রাজনগরের একজন পানদোকানি মারা গেছেন।