নেত্রকোণায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে বিজিবি সদস্য স্বামী আটক

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোনা প্রতিনিধি: নেত্রকোণা জেলার মদন উপজেলায় যৌতুকের মোটরসাইকেল না পাওয়ায় শাহিনূর আক্তার পান্না (২৬) নামের গৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে বিজিবি সদস্য স্বামী ওমর সানি লিংকনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার (১৪ জুন) সকালে মদন উপজেলার গোবিন্দশ্রী পশ্চিম পাড়া গ্রামের স্বামীর বাসগৃহের বিছানা থেকে শাহিনূর আক্তার পান্নার মরদেহ উদ্ধারের পর বিকেলে এ বাড়ি থেকেই ওমর সানি লিংকনকে হত্যা মামলার আসামি হিসেবে গ্রেফতার করে মদন থানা পুলিশ।

ওমর সানি লিংকন কক্সবাজার রিজিওয়নের টেকনাফ ব্যাটালিয়নের ২ নং বিজিবি’র রামু সেক্টরের সিপাহী। তিনি ওই গোবিন্দশ্রী পাড়া গ্রামের আলতাব মাস্টারের ছেলে। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মদন থানার ওসি মো. রমিজুল হক। মামলার বরাত দিয়ে ওসি জানান, ২০১৪ সালে ওমর সানি লিংকন অরফে লিংকনের সঙ্গে বিয়ে হয় শাহিনূর আক্তার পান্না অরফে পান্নার।

বিয়ের সময় লিংকনকে ৫ লাখ টাকা যৌতুক ও ৪ ভরি স্বর্ণালংকার যৌতুক দেয়া হয় পান্নার পরিবারের পক্ষ থেকে। কিন্তু বিয়ের পর পান্নার বাবার বাড়ি থেকে একটি মোটরসাইকেল যৌতুক নেয়ার জন্য লিংকন প্রায়ই চাপ প্রয়োগ করতো পান্নাকে। মোটরসাইকেল এনে না দেয়ায় পান্নাকে মাঝে-মধ্যে মারধরও করত লিংকন। কয়েকদিন আগে লিংকন ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসার পর এ নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়েছিল। এক পর্যায়ে গত শনিবার (১৩ জুন) রাতে লিংকন ও তার পরিবারের কয়েকজন মিলে শ্বাসরোধ করে পান্নাকে মেরেই ফেলেছে।

ওসি আরো জানান, এসব অভিযোগ এনে রবিবার সকালে মামলাটি করেছেন পান্নার ছোট ভাই নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের সরাপাড়া গ্রামের মাহফুজ আলম মমিন। মামলায় আসামি করা হয়েছে পান্নার স্বামী, শ্বাশুড়ি আর ননদকে।

এদিকে, পান্নার মরদেহ নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। পান্নার গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। গ্রেফতার লিংকনকে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। অন্য আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান ওসি।