নেত্রকোণায় ভ্যানগাড়ি ভর্তি সবজি নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে হিমালয় ফাউন্ডেশন

 জাহাঙ্গীর আলম,নেত্রকোণাঃ করোনা প্রাদুর্ভাবে যখন প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়া নাগরিকদের এক রকম বন্ধ হয়ে গেছে তখন ভিন্ন চিন্তা নিয়ে এগিয়ে এলেন হিমালয় ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে একদিকে যেমন ত্রাণ বিতরণ করছেন অন্যদিকে যারা বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না তাদের জন্য ভ্যানগাড়ি ভরে সবজি নিয়ে ঘুরছে হিমালয় ফাউন্ডেশনের ভ্যানগাড়ি। যাতে করে লোকজনের বের হতে না হয় সেজন্য নিজে এবং তার সহকর্মীদের দিয়ে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায়-কর্মহীনদের মাঝে ভ্যানগাড়ি করে হরেক রকমের সব্জি বাড়ি বাড়ি পৌছে দিচ্ছে। নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার পৌর শহর ও প্রক্যেকটি ইউনিয়নে ৪টি ভ্যানগাড়ি ভর্তি কাঁচাবাজার নিয়ে অসহায়-কর্মহীনদের মাঝে বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌছে দিচ্ছেন হিমালয় গ্রুফের কর্মী-সমর্থকরা। আজ মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, জেলার কেন্দুয়া উপজেলায় ৪টি ভ্যানগাড়িতে লাউ, মিষ্টি কুমড়া, শাক, আলু, পেঁপে, বেগুন, টমেটোসহ বাহারি পদের শাকসবজি এতে রয়েছে। তবে এগুলো বিক্রির জন্য নয়, করোনা প্রাদুর্ভাবে লকডাউনের কারণে যেসব সাধারণ মানুষ বাজারে যেতে পারেন না, তাদের জন্য বিনামূল্যে বিতরণের জন্য এই আয়োজন আগামী ৭দিন পর্য্যন্ত চলবে । হিমালয় ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান, করোনার প্রাদুর্ভাবে অসহায়-কর্মহীনদের ৭দিন ব্যাপী এই কার্য্যক্রম অব্যাহত থাকবে। আর কেবল কাঁচাবাজারই নয়, সময়ে সময়ে চালসহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যও বিতরণ করে যাচ্ছি। উল্লেখ্য, এর আগে প্রতিদিন কেন্দুয়া উপজেলায় মাস্ক বিতরণ, নিজে ও কর্মীদের দিয়ে বাসায় বাসায় জীবাণুনাশক স্প্রেসহ বেশকিছু জনকল্যাণমুখী কাজ করে প্রশংসিত হয়েছেন হিমালয় ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান।