নেত্রকোণার মদন পর্যটন কেন্দ্রে নৌকা ডুবির ঘটনায় আরো ১ জনের লাশ উদ্ধার

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার মদন উপজেলায় পর্যটন কেন্দ্র মিনি কক্সবাজার নামে খ্যাত উচিতপুরের হাওরে ঘুরতে এসে নৌকা ডুবির ঘটনায় আরো ১ জনের লাশ উদ্ধার এলাকবাসি, এনিয়ে ১৮ জনের লাশ উদ্ধার।

৭ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকাল ৯ টার দিকে রাজালীকান্দা এলাকায় মরদেহ ভেসে উঠলে এলাকাবাসি উদ্ধার করে। মৃত ব্যাক্তির নাম রাকিব মিয়া (২০) সে ময়মনসিংহ উপজেলার কোনাবাড়ি গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে। সে নেত্রকোণা আটপাড়া উপজেলার তেলিগাতি টেঙ্গা জামিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক ছিলেন।
টলার ডুবির ঘটনায় মদন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রধান করে ৪ সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
তদন্ত কমিটির অন্য সদস্যরা হলে মদন থানার অফিসার ইনর্চাজ রমিজুল হক,উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ফখরুল হাসান চৌধুরী,ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার আহমেদুল হক।

উল্লেখ্য বুধবার দুপুরে মদনের উচিতপুরের সামনের হাওর গোবিন্দশ্রী রাজালীকান্দা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। উদ্ধার হওয়া লুবনা আক্তার (১০) ও জুলফা আক্তার (৭) ২ সহোদর বোন সহ ১৭জনেরর লাশ উদ্ধার হয়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে ময়মনসিংহ সদর থানার ৫নং চরশিরতা ইউনিয়ন ও আটপাড়া তেলিগাতী থেকে ৪৮ জন ঘুরতে মিনি কক্সবাজার উচিতপুরে আসে। পরে ঘুরতে গেলে হাওরের উত্তাল ঢেউয়ে গোবিন্দশ্রী রাজালীকান্দা নামক স্থানে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে পনেরো জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরো চার জন।

ওসি মোঃ রমিজুল হক জানান, মদন হাওরে নৌকা ডুবিতে ১৭ টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ১ জন নিখোঁজ ছিল আজ সকালে লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে।