নেত্রকোণার বারহাট্টা উপজেলার সাহতা ইউনিয়নের দক্ষিণ ডেমুড়া গ্রামে পানিবন্দী কয়েক হাজার মানুষ

 মামুন কৌশিক,  বারহাট্টা উপজেলা প্রতিনিধি : নেত্রকোণা জেলার বারহাট্টা উপজেলার সাহতা ইউনিয়নের দক্ষিণ ডেমুড়া, সাবানিয়া ও নতুন বাজার সংলগ্ন কয়েকহাজার মানুষ পানি বন্দী হয়ে পরেছেন উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে।এমনিতেই এলাকাটি কংশ নদীর শাখা নদী বিশনাইয়ের তীরে অবস্থিত হওয়ায় ভাঙ্গন সহ সব ধরণের সমস্যা লেগেই আছে।

এলাকার শতবর্ষী এঙরাজ আলী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন যে, স্বাধীনতার পরে সারা বাংলাদেশে অনেক রাস্তাঘাট হলেও আমাদের বারহাট্টা উপজেলার সাহতা ইউনিয়নের দক্ষিণ ডেমুড়া গ্রামের নদীর পার বারবার অবহেলিত।আজো আমাদের নদীর তীর দিয়ে হেঁঠে যেতে হয়।কোন স্থায়ী রাস্তা আমাদের নেই।অথচ আমাদের গ্রামের ভোটে সবাই চেয়ারম্যান, মেম্বার হয়।পাশ করার পর আমাদের কথা আর মনে থাকেনা।তিনি আরো বলেন যে, ২০০৪ সালের পর এবার আমাদের এলাকা বেশি প্লাবিত হয়েছে।

নদীর তীরবর্তী জিনাইপুরী,সাবানিয়া,নতুন বাজার এলাকায় বিপদ সীমার উপর দিয়ে পানি প্লাবিত হচ্ছে।জিনাইপুরী গ্রামের একাধিক কৃষক,ছাত্র ছাত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন যে, আমরা দাদা দাদীদের কাছে গল্প শুনেছি যে তারা বর্ষাকালে নদীর তীরে সাঁতরিয়ে পার হতেন।কোন ধরণের রাস্তাঘাট ছিল না।আমাদের সময়েও একই অবস্থা। রাস্তা না থাকায় কোনটা নদীর তীর আর কোনটা রাস্তা কিছুই বুঝা যাচ্ছেনা। পানি নেমে যাওয়ার পরে তারা নেত্রকোণা সদর ও বারহাট্টা উপজেলার এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু মহোদয়ের কাছে দাবী করেন যে, অন্তত মাঠি কেটে চলার মত একটা রাস্তা যেন করে দেওয়া হয়।