নেত্রকোণার বারহাট্টায় শ্যামাপূজা ও দীপাবলি অনুষ্ঠিত

মামুন কৌশিক, বারহাট্টা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার বারহাট্টায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শ্যামাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।কার্তিক মাসের অমাবস্যা তিথিতে বারহাট্টা উপজেলা সহ সারা দেশে এই শ্যামাপূজা বা কালীপূজা অনুষ্ঠিত হয়। হিন্দু পূরাণ মতে, কালী দেবী দুর্গারই একটি শক্তি। সংস্কৃত ভাষার ‘কাল’ শব্দ থেকে কালী নামের উৎপত্তি। কালী পূজা হচ্ছে শক্তির পূজা।
কালীপূজার দিন হিন্দু সম্প্রদায় সন্ধ্যায় তাদের বাড়িতে ও শ্মশানে প্রদীপ প্রজ্বালন করে স্বর্গীয় মা-বাবা ও আত্মীয়-স্বজনকে স্মরণ করে। এটিকে বলা হয় দীপাবলি।দুর্গাপূজার মতো কালীপূজায়ও ঘরে বা মণ্ডপে প্রতিমা নির্মাণ করে পূজা করা হয়। মধ্যরাত্রে তান্ত্রিক পদ্ধতিতে মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে পূজা অনুষ্ঠিত হয়। তবে গৃহস্থ বাড়িতে সাধারণত অতান্ত্রিক ব্রাহ্মণ্যমতে আদ্যাশক্তি কালীর রূপে কালীর পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

লোকবিশ্বাস অনুযায়ী, কালী শ্মশানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী। এ কারণে বিভিন্ন অঞ্চলে শ্মশানে মহাধুমধামসহ শ্মশানে কালীপূজা অনুষ্ঠিত হয়।জগতের সব অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভ শক্তির বিজয় হবে এই বিশ্বাসে ভক্তরা পূজা দিতে আসেন বারহাট্টা উপজেলার মন্দির গুলেতে। বারহাট্টা উপজেলা পূজা কমিটির পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাসের কথা চিন্তা করে সমাজিক দূরত্ব এবং মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলা হলেও অনেক মন্দিরেই ভক্তদের মাস্ক ব্যবহার না করেই পূজা উৎযাপন করতে দেখা যায়। তবে সকল ভক্তদের একটাই আশা পূজার পরপরই যেন পৃথিবী থেকে সকল মহামারী সহ সকল অপশক্তির বিনাশ হয়।