নেত্রকোণার বারহাট্টায় ঈদ উপলক্ষে নষ্ট মিষ্টি বিক্রির অভিযোগ

মামুন কৌশিক, বারহাট্টা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার জেলার বারহাট্টা উপজেলার একটি আদি মিষ্টির দোকান হল অধীর মিষ্টান্ন ভান্ডার (মনোরঞ্জনদের মালিকানাধীন) । কিন্তুু গত কয়েক বছর ধরে প্রতিষ্টানটির তৈরি মিষ্টি খেয়ে এলাকাবাসীর নানা অভিযোগ রয়েছে। এলাকাবাসী প্রায়ই অভিযোগ করেন যে অধীর মিষ্টান্ন ভান্ডারের মনোরঞ্জন দের মালিকাধীন দোকানটি থেকে প্রায়ই পঁচা ও বাসি মিষ্টি গ্রহকদের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয়।

একাধিক বার তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগও দেওয়া হয়েছে।অন্যান এলাকাবাসীর সাথে এবার অভিযোগ করেন বারহাট্টা সিকেপি সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাহবুবুর রহমান। তিনি এই প্রতিবেদককে জানান যে, তার এক আত্বীয় পাঁচ থেকে ছয় কেজি মিষ্টি ওই অভিযুক্ত দোকান থেকে কিনে নিয়ে আসেন।তিনি তার প্রতিবেশী সহ সকল আত্বীয়দের বাসায় মিষ্টি বিলি করেন।

কিন্তুু সবার কাছ থেকে একই অভিযোগ যে মিষ্টি পঁচা ও বাসি ছিল। পরে তিনি দোকানদারের সাথে যোগাযোগ করলে দোকানদার উনার সাথে খারাপ আচরণ করেন।এছাড়াও উপজেলার নিশ্চিন্তপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পিয়াস আহম্মেদ ও উক্ত দোকানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেন।সহকারী শিক্ষক মাহবুবুর রহমান উক্ত বিষয়টি বারহাট্টা উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোর্শেদের কাছে মৌখিক অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোর্শেদ বলেন যে, আমি মনোরঞ্জন দে র মালিকানাধীন অধীর মিষ্টান্ন ভান্ডারের বিরুদ্ধে পঁচা ও বাসি মিষ্টি বিক্রির অভিযোগ পেয়েছি।আমি বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।