নেত্রকোণার চাঞ্চলল্যকর শাহীনুর হত্যা মামলার বাদী ও সাক্ষীর মাঝে সংঘর্ষ ও ভাংচুর, আহত ৭

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধি: নেত্রকোণার চাঞ্চল্যকর শাহীনুর আক্তার হত্যা মামলার বাদী ও সাক্ষীর মাঝে সংঘর্ষ ও ভাংচুর হয়েছে।

শনিবার(৯মে) বিকালে পৌর শহরের সাতপাই রেলকলোনী এলাকায় শাহীনুর হত্যা মামলার বাদী ও সাক্ষীদের উভয় পক্ষের মধ্যে এই ভাংচুর ও আহতের ঘটনা ঘটে। সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নেত্রকোণা পৌরসভার সাতপাই এলাকার রেলকলোনীর চাঞ্চল্যকর শাহীনুর আক্তার হত্যা মামলার বাদীর পরিবারের আত্মীয় স্বজন সালাম, কালাম (শাহীনুর আক্তারের ভাই) তাদের নিজেদের মনগড়া অনুযায়ী স্বাক্ষ্য দেয়ার কথা বলে সাক্ষীদের।

এরই জের ধরে উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে উভয়ের মধ্যে বাড়ি-ঘর, দোকান ভাংচুর ও আহত হয়। এতে হত্যা মামলার সাক্ষীপক্ষের মধ্যে আহত হয় ইসলাম উদ্দিন, ফজলুল হক সোহেল, শাহীন মিয়া অন্যদিকে বাদি পক্ষের বিল্লাহ, আশিক, আখি, কালাম আহত হয়। আহতরা নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনাস্থল নেত্রকোণা মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শন করেছে।

এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। উল্লেখ্য, গত বছরের ১৮মে (শুক্রবার) সেহরীর সময় শাহিনুর আক্তার(২৬) পানি আনতে বাড়ির পাশের টিউবওয়েলে যায়। তখন পাশের একটি ঘরে ইদ্রিস মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া (৩০) স্ত্রীকে সরিয়ে অন্য এক নারীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত রয়েছে। এ ঘটনা দেখে শাহিনুর ওই যুগলের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে জড়ায়। এক পর্যায়ে সোহেলের ছুরিকাঘাতে শাহিনুরের মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় পরদিন নিহতের বড় ভাই ওহিদ মিয়া বাদী হয়ে ১৬ জনকে আসামি করে নেত্রকোণা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে ১০জনের নাম চার্জশিটভুক্ত হয়।