নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডে সংঘর্ষ, অগ্নিসংযোগ-ভাঙচুর

সাদিকুল ইসলাম সাদিক, নীলফামারী প্রতিনিধি:  নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডে শ্রমিক ছাঁটাইকে কেন্দ্র করে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে শ্রমিকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ইপিজেডের একটি কারখানায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

তিন ঘণ্টা ধরে চলা বিক্ষোভে কয়েকটি কাভার্ড ভ্যান, মোটরসাইকেল ও অফিসের কয়েকটি কম্পিউটারে অগ্নিসংযোগ করা হয়। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ফিরে যান বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। শনিবার (২৭ জুন) সকালে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে উত্তরা ইপিজেডের এভারগ্রিন পরচুলা কারখানার সামনে শ্রমিকরা একত্রিত হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে থাকে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে নীলফামারী, সৈয়দপুর ও ইপিজেডের তিনটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ জানায়, ওই কারখানায় কয়েকদিন ধরে শ্রমিক ছাঁটাই প্রক্রিয়া চলছিল। এভারগ্রিন কর্তৃপক্ষ দীর্ঘদিনের কর্মরত শ্রমিকদেরও ছাঁটাই শুরু করেন।

ফলে শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। পরে নীলফামারী জেলা প্রশাসক (ডিসি) হাফিজুর রহমান চৌধুরী ও জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবিএম আতিকুর রহমান ও ইপিজেডের জিএম এনামুল হক উপস্থিত হয়ে শ্রমিকদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।