নীলফামারীতে জমির বিরোধে শিশুকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

সাদিকুল ইসলাম সাদিক, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি: নীলফামারীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র আছেমুল বারী (১০) নামে এক শিশুকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দাদার ভাই ও চাচারা।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলের দিেিক সদর উপজেলা সোনারায় ইউনিয়নের বেড়াকুঠি বক্সিপাড়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।

আছেমুল বারী ওই এলাকার আনসার বাহিনীর সদস্য ময়নুল ইসলামের ছেলে।

আহত শিশু বর্তমানে নীলফামারী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, আহত শিশুর আছেমুল বারীর পিতার সঙ্গে তার চাচা জিকরুল হক, আব্দুল আজিজ, আব্দুস সামাদ ও নজরুল ইসলামের পৈত্রিক সম্পত্তি জমি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।

ঘটনার দিন চলাচলের রাস্তা নিয়ে তার ছোট ভাই আইনুলের সাথে তার চাচা ও চাচাতো ভাই আলতাব হোসেন, আতিকুল ইসলাম ও মেহের জামানের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়।

এসময় জিকরুল হক খোন্তা দিয়ে শিশুটিকে আঘাত করে হত্যার চেষ্টা চালায়।

পরে লোকজন ছুটে আসলে সবাই পালিয়ে যায়। শিশুটির পিতা ময়নুল ইসলাম বলেন, আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ আঘাত করা হয়েছে।

তাদের ধারণা আমাদের যে কোন একজনকে হত্যা করতে পারলে আমাদের সব সম্পত্তি দখল নিতে পারবে।

কারন এর আগেও বহুবার আমাদের ওপর হামলা করেছে। আমি হামলাকারীদের উপযুক্ত বিচার চাই।

এব্যাপারে অভিযুক্ত জিকরুল হক বলেন, শিশুটিকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যে ও বানোয়াট।

আমাদের মিথ্যা মামলায় ফাসিয়ে সুবিধা নিতে সাজানো নাটক করা হয়েছে।