নিষিদ্ধ যেসব দেশে ক্রিসমাস উদযাপন

যিশু খ্রিস্টের জন্মদিন অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বরে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ক্রিসমাস উদযাপন করে থাকে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা। কিন্তু বিশ্বের সব দেশেই ক্রিসমাস উদযাপনের অনুমতি নেই।

১. সোমালিয়া -:পূর্ব আফ্রিকার মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ সোমালিয়ার সরকার ২০১৫ সালে ক্রিসমাস উদযাপন নিষিদ্ধ করে। এমনকি দেশটির নিরাপত্তা সংস্থাকে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় এই উৎসব উদযাপনকারীকে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ জারি করে সরকার।

২. ব্রুনেই-: দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার বোর্নিও দ্বীপে অবস্থিত ব্রুনেই নামের দেশটির সুলতান হাসানাল বোলকিয়াহ ২০১৪ সালে আইন করে মাধ্যমে ক্রিসমাস উদযাপন নিষিদ্ধ করেন। এই আইনে ক্রিসমাস উদযাপনকারীকে ২০ হাজার ডলার অর্থদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ড দেয়া হয়।

৩. উত্তর কোরিয়া -: উত্তর কোরিয়া সমাজতান্ত্রিক এবং সরকারিভাবে নাস্তিক রাষ্ট্র। দেশটিতে ১৯৪৮ সাল থেকেই সব ধরনের ধর্মীয় উৎসব উদযাপন নিষিদ্ধ ছিল। তবে দেশটির বর্তমান নেতা কিম জং-উন ২০১৭ সালে এই নিষেধাজ্ঞা আরও কঠোর করেছেন।

৪. সৌদি আরব -: সৌদি আরবে ইসলাম ছাড়া অন্য কোনও ধর্ম পালন করা নিষিদ্ধ। এমন একটি দেশে ক্রিসমাস উদযাপনের অনুমোদন না থাকা মোটেও বিস্ময়কর নয়। দেশটির সরকার ২০১৫ সালে ক্রিসমাসের বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান নিশ্চিত করে।

৫. তাজিকিস্তান -: মধ্য এশিয়ার দেশ তাজিকিস্তানে ২০১৫ সালে ক্রিসমাস উদযাপন নিষিদ্ধ করা হয়। দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক আদেশে বিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নিউ ইয়ার ও ক্রিসমাস উপলক্ষে অর্থ সংগ্রহ, খাবার পরিবেশন, উপহার প্রদান করা এবং আতশবাজি ফোটানো নিষিদ্ধ করে।

রোববার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ক্রিসমাস উদযাপন নিষিদ্ধ করা পাঁচটি দেশের কথা তুলে ধরেছে ওয়েকআপ নাইজেরিয়া ফোরাম নামের একটি ওয়েবসাইট।