নিউমার্কেটের চার কাপড় ব্যবসায়ির অর্থ দন্ড

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার, চাঁদপুর প্রতিনিধি: বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসন চাঁদপুর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছে মার্চ মাসের শেষ দিকে। কিন্তু কেউ লকডাউন মানছে না।সে জন্য চাঁদপুর বাসীকে করোনা মুক্ত রাখতে সচেতনতায় সেনা বাহিনীকে সাথে নিয়ে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগন। পাশাপাশি মোবাইল কোট পরিচালনা ও করছেন।

জনসাধারনকে ঘরে থাকতে সেনা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুকি নিয়ে চাঁদপুর জেলায় কাজ করে যাচ্ছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে কুমিল্লা ক্যান্টরম্যান্ট সেনা নিবাস থেকে ক্যাপ্টেন তুহিনের নেতৃত্বে একটি টিম ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট সামিউল ইসলাম শহরে শতর্কতা মুলক অভিযান চালান। এসময় লকডাউন অমান্য করে বিভিন্ন মার্কেটে দোকানিরা দোকান খোলা রেখে বেচা বিক্রি করলে তাদের হুশিয়ার করেন এবং কাউকে কাউকে মোবাইল কোটের মাধ্যমে জরিমানা করেন। জনসাধারনকে মুক্তিযুদ্ধা সড়কে,মিশিন রোড,কালি বাড়ি মোড়, পালবাজার এলাকায় অযথা ঘুরাঘুরি করার কারণে শতর্ক করে দেন।রাস্তার পাশে ভ্যান যোগে পর্ণ বিক্রেতাদের কে ও হুশিয়ার করেন।

এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সামিউল ইসলাম ও ক্যাপ্টেন তুহিন শহরের নিউ মার্কেটের অসাধু কাপড় ব্যবসায়ী পাকিজা কথ্ল স্টোর,তানিয়া কথ্ল স্টোর,ইফাজ ফ্যাশন ও গ্রীন প্যালেস কে ১হাজার টাকা করে ৪হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় সামিউল ইসলাম বলেন,করোনা বিশ্ব ব্যাপী মহামারি আকার ধারন করেছে।বহু মানুষ মৃত্যুবরন করেছে। আমরা জীবনের ঝুকি নিয়ে সরকারের নির্দেশনা পালন করছি, সেনা বাহিনী আমাদের সাথে সচেতনতায় কাজ করে যাচ্ছে।আমরা সাধারন মানুষদের কে ঘরে থাকার জন্য নির্দেশ দিয়ে যাচ্ছি।

ক্যাপ্টেন তুহিন বলেন, বাংলাদেশে করোনা মহামারি আকার ধারন করেছে। আমরা জন সাধারনকে ঘরে রাখতে সার্বক্ষনিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহ চাঁদপুরে কাজ করে যাচ্ছি। আজকে পর্যন্ত হুশিয়ার করেছি কাল থেকে আর হুশিয়ার করবোনা কঠোর হবো।