নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে শরীফ হত্যাকারীদের ফাসিঁর দাবিতে মানববন্ধন

সফিকুল ইসলাম জনি, ফতুল্লা প্রতিনিধি:  নারায়নগঞ্জের দেওভোগ আদর্শনগর এলাকার শরীফ মাদবর হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে শহরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে নিহত শরীফের পিতা আলাল মাদবরের সভাপতিত্বে এলাকাবাসির আয়োজনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি করা হয়।

নিহতের পিতা আলাল কান্না জরিত কন্ঠে বলেন, আমার ছেলে হত্যাকারীরা পালিয়ে থেকে আমাদেরকে হুমকি দেয়। আমার ছেলে হত্যারা সাথে জরিতদেও মাঝে এখনো যাদের গ্রেপ্তার করা হয়নি তাদের গ্রেপ্তার করে বিচারের দাবী জানাই। আমার মত আর কোন পিতার যেন সন্তান হারাতে না হয়। আমি আমার ছেলে শরীফ হত্যাকারীদের ফাসী চাই।

নিহত শরীফের মা রহিমা বেগম চোখের জল ফেলে বলেন, ওরা আমার ওনার্স পাশ করা ছেলে কেন হত্যা করলো। সন্ত্রাসীরা আমার বুক কেন খালি করলো। যারা আমার ছেলেকে হত্যা করেছে আমি তাদের ফাসি চাই। তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচার চাই। প্রসঙ্গত গত ১ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আদর্শনগর আল আফাসা জামে মসজিদের দক্ষিণে শ্যামলের গ্যারেজের গেইটের সামনে ব্যবসায়ী শরীফকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এ দিন সন্ধ্যায় নিহতের পিতা আলাল মাতবর এ ঘটনায় বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পরদিনই পুলিশ অভিযান চালিয়ে সিসি টিভির ফুটেজ থেকে চিহ্নিত করে দুজন এ জাহারনামীয় আসামীসহ ৯ জনকে গ্রেপ্তার করে। এ ছাড়া ১৬ এপ্রিল র‌্যাব হত্যাকান্ডের মুল হোতা আদর্শনগর এলাকার বাদশাহ মিয়ার ছেলে লিমন ওরফে রিমন এবং একই এলাকার আনোয়ার মিয়ার ছেলে সম্প্রাটকে গ্রেপ্তার করে ফতুল্লা থানায় সোপর্দ করে।

এর আগে ৩ এপ্রিল একই মামলায় জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে হস্তানতরক আদর্শনগর এলাকার ইসমাইল, রাসেল, মুন্নার বাড়ির নিচতলার ভাড়াটিয়া ওসমান ওরফে জীবন, বাড়ৈভোগ মসজিদ সংলগ্ন সূর্য বেগমের ভাড়াটিয়া সোহাগ, দেওভোগ নূর মসজিদ সংলগ্ন রকি, একই এলাকার জালাল মোল্লার ভাড়াটিয়া রাসেল, বাহ উদ্দিন মিয়ার ভাড়াটিয়া মেহেদী হাসান

৬২ নং আদর্শনগর এলাকার মিলন হোসেন এবং ময়না কমিশনারের ভাড়াটিয়া কমল মিয়া, ২৭এপ্রিল (সোমবার) দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে পশ্চিম দেওভোগ এলাকা থেকে শরীফ হত্যা মামলার মূল আসামী শেখ মো.শাকিল ওরফে বড় শাকিল (৩০) ও লালনকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে ফতুল্লা থানা পুলিশ। নিহত শরীফ মাদবরের পিতা ও এলাকাবাসী খুনীদের ফাঁসির রায় কার্যকর করতে প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্যের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।