নাটোরে বন্যার অন্যতম কারন সোঁতিজাল,নদীতে জাল ফেলে বন্যা সৃষ্টিকারীদের রেহাই নেই: প্রতিমন্ত্রী পলক

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতনিধিঃ  আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, নদীতে অবৈধ ও নিষিদ্ধ সোঁতি জাল ফেলে বন্যা সৃষ্টিকারীরা যত শক্তিশালী হোক না কেন তাদের রেহাই নেই। প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে। বিগত দিনে এদের বিরুদ্ধে যেভাবে অভিযান চালিয়েছি প্রয়োজনে এবারও জনগনকে সাথে নিয়ে এদের বিরুদ্ধে অভিযান করবো।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বন্যায় সিংড়া উপজেলার ভঙ্গন কবলিত শোলাকুড়া এলাকা পরিদর্শন সহ বন্যার্তদের ত্রান বিতরনকালে এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, উপজেলার কতিপয় কিছু সন্ত্রাসী নদীতে অবৈধ সোঁতিজাল দিয়ে পানির স্বাভাবিক চলাচল ব্যহত করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। অবৈধ সোঁতি উচ্ছেদে ও নিয়মিত মামলা দিতে প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যেই প্রশাসন কাজ শুরু করেছে। তিনি ক্ষতিগ্রস্থ এলাকার মানুষদের উদ্দেশ্যে বলেন, ভাঙ্গন ঠেকাতে ১০ হাজার জিও ব্যাগ দিয়ে বালি ফেলানো হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগ সহ আওয়ামীলীগের সেচ্ছাসেবকরা কাজ করছে। প্রতিমন্ত্রী আত্রাই নদীর পানির প্রবল স্রোতে পৌরসভার শোলাকুড়া এলাকার ১৩টি বাড়ি সম্পন্ন এবং আংশিক বিলীন হয়ে যাওয়া ৫ টি বাড়ি-ঘর দেখতে যান। সেখানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের সাথে কথা বলতে গেলে তাদের অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

তিনি তাদের সান্তনা দিয়ে ধৈর্য ধারন করতে বলেন। এসব ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরন করেন তিনি। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিংড়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাসরিন বানু, পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস, প্রকল্প কর্মকর্তা আল আমিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক রুহুল আমিন প্রমুখ।