নাটোরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীঃ নতুন নতুন দেশে মানব সম্পদ প্রেরনসহ রফতানির পরিধি বাড়ানো হচ্ছে

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ পররাস্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষে নতুন নতুন দেশে মানব সম্পদ প্রেরন সহ বাংলাদেশের পণ্য রফতানির পরিধি বাড়ানোর কাজ করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়। শনিবার দুপুরে নাটোর সার্কিট হাউজে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন।

জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজের সভাপতিত্বে সভায় স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোর-১ আসনের সাংসদ শহিদুল ইসলাম বকুল, পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন,জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাজেদুর রহমান কান, পৌর মেয়র উমা চৌধুরী জলি ও মন্ত্রনালয়ের উপসচিব সহ জেলা ও পুরিশ প্রশাসনের কর্মকতার্রা উপস্থিত ছিলেন।

পররাস্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমিন ও তাঁর স্ত্রী সহ মন্ত্রনালয়ের ৪৮ কর্মকর্তা ও কর্মচারীর একটি প্রতিনিধি দল আজ শনিবার সকালে নাটোর সফরে আসেন। পররাস্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমিন উত্তরা গণভবন ও নাটোর রাজবাড়ি পরিদর্শন শেষে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনমিয় করেন। পররাস্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, করোনাকালে বাংলদেশের প্রবৃদ্ধি সন্তোষজনক অবস্থায় রয়েছে। বর্তমানে রেমিটেন্স বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশের বড় শক্তি মানব সম্পদকে গুরুত্ব দিয়ে নতুন নতুন দেশের সাথে চুক্তি করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে নতুন দেশ হিসেবে পোলান্ড, ক্রোয়েশিয়া, উজবেকিস্তানে মানব সম্পদ পাঠানো হয়েছে। এছাড়া জাপান ও দক্ষিন কোরিয়াতেও নতুন করে পাঠানো হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে উৎপাদিত পন্য ও জায়গার সথে পরিচিত হওয়ার জন্য মন্ত্রনালয়ের সকল কর্মকতার্কে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করা প্রয়োজন। এই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে নাটোরে একদিনের সফরে আসা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর সঙ্গীদের মধ্যে ছিলেন তাঁর স্ত্রী মিসেস সেলিনা মোমেন, পরারাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব, মাসুদ বিন মোমেন, অতিরিক্ত সচিব, মোঃ শামসুল হক, অতিরিক্ত সচিব, সাব্বির আহমেদ চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব,সৈয়দ মাসুদ খন্দকার, মহাপরিচালক, এফ এম বোরহান উদ্দিন, মহাপরিচালক, খন্দকার এম তালহা, মহাপরিচালক নজরুল ইসলাম, মহাপরিচালক তরিকুল ইসলাম, মহাপরিচালক মোঃ সারোয়ার মাহমুদ, মহাপরিচালক (প্রশাসন) মেহেদী হাসান সহ ৩৭ কর্মকর্তা। এছাড়া মন্ত্রনালয়ের সংশ্লিষ্ট আরও ১১ জন তার সফর সঙ্গি ছিলেন।

মতবিনিময় শেষে পররাস্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমিন তার লেখা “বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা-বাংলাদেশের উন্নয়ন ভাবনা ও আমাদের কুটনীতি বইটি উপস্থিত জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দকে উপহার দেন।