নাটোরে কানুজগাড়ি বিলে প্রথম বাউত উৎসব

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের পন্ডিতগ্রাম ও বারোঘরিয়া এলাকার কানুজগাড়ি বিলে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হয়েছে মাছ ধরার বাউত উৎসব। শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল থেকে শত শত মানুষ পলো নিয়ে হাজির হয় এই বিলে।

আশে পাশের গ্রাম সহ বড়াইগ্রাম, সিংড়া, নলডাঙ্গা এমন কি পার্শ্ববর্তী নওগা জেলার আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে মাছ শিকারীরা এসে উৎসবে যোগ দেন। শিকারীদের কেউ কেউ মোটর সাইকেল, ইজিবাইক, নসিমন, বাই সাইকেল আবার কেউ পায়ে হেঁটে এসে এই উৎসবে যোগ দেন। মাছ শিকারীরা জানান ক’দিন ধরে ঢোল দিয়ে কানুজগাড়ি বিলে পোলো দিয়ে মাছ মারার ঘোষনা দিয়ে প্রচার করা হয়।

আশে পাশের গ্রামের মানুষদের কিছু জমি গত কয়েক বছর ধরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় ফসল আবাদ করতে পারছেনা। তারাই এবার এই মাছ ধরার বাউত উৎসবের আয়োজন করেছেন। বড়াইগ্রামের ভবানীপুর গ্রামের শৌখিন মাছ শিকারি উজ্জল বলেন, যেখানেই মাছ মারার বাউত উৎসব হয় সেখানেই তিনি হাজির হন। কানুজগাড়ি বিল থেকে তিনি বড় বড় তিনটি মাছ পেয়েছেন্।

বাগাতিপাড়া উপজেলার মাছ শিকারী রহিম শেক বলেন, মাছ মারাটাই তাদের আনন্দ। এই বিলে এবারই প্রথম মাছ ধরার উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। সদর উপজেলার সোবাদার গ্রাম থেকে এলাকার অন্যদের সাথে বাউত উৎসবে আসা ৭০ বছর বয়সী সমশের আলী বলেন, আনন্দ করার জন্যই তিনি গ্রামের মানুষদের সাথে এখানে এসে মাছ ধরার উৎসবে যোগ দেন।

একটি মাছও পেয়েছেন তিনি। খুব আনন্দ করেছেন। আর প্রায় দুই কেজি ওজনের একটি মাছ পেয়ে বেশ খুশী হয়েছেন। স্থানীয় কলেজ শিক্ষক সাজেদুর রহমান জানান, এক সময় এই বিলে ফসল আবাদ হতো। কয়েক বছর ধরে জলাবদ্ধতার কারনে আর আবাদ করা যায়না। ওই পানিতেই এবার মাছ ধরার উৎসবের আয়োজন করেন ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিকরা।