নাটোরে ইউএনওদের নিরাপত্তায় সশস্ত্র আনসার মোতায়েন

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ সরকারি সিদ্ধান্তে দেশের অন্যান্য স্থানের মত নাটোরের সাত উপজেলায় নিবার্হী অফিসারদের নিরাপত্তায় সশস্ত্র নিরাপত্তারক্ষী (আনসার) মোতায়েন করা হয়েছে।
শুক্রবার রাত থেকেই তারা দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন। শনিবার ৫ সেপ্টেম্বর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ নাদিম সারোয়ার।

নাটোর সদর উপজেলার নিবার্হী অফিসার (ইউএনও) জাহাঙ্গীর আলম,গুরুদাসপুর ইউএনও তমাল হোসেন ও নলডাঙ্গার ইউএনও আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, তাদের সরকারী বাসার নিরাপত্তার জন্য শুক্রবার রাত থেকে আপাতত চারজন করে আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন। পরবর্তীতে শারীরিক নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক নিরাপত্তারক্ষী দায়িত্ব পালন করবেন।
উল্লেখ্য, দূর্বৃত্তের হামলায় দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানম গুরুতর আহত হওয়ার পর সরকার সারা দেশের সকল উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নিরাপত্তা জোরদারের সিদ্ধান্ত নেয়।
এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে শুক্রবার ইউএনওদের সার্বক্ষণিক শারীরিক ও বাসভবনের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য অঙ্গীভুত সশস্ত্র আনসার সদস্য মোতায়েনের জন্য আনসার ও ভিডিপির মহাপরিচালক বরাবর নির্দেশ দেয়।

এর প্রেক্ষিতে শুক্রবার সন্ধায় আনসার ও ভিডিপি রাজশাহী রেঞ্জের পরিচালক ফজলে হোসেন রাব্বী বিভাগের আটটি জেলার কমান্ড্যান্টকে একটি নির্দেশনা পাঠান। এতে প্রত্যেক ইউএনও’র জন্য ১০ জন করে নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েনের নির্দেশ দেওয়া হয়। ওই নিেের্দেশের পর রাজশাহী বিভাগের ৬৬টি উপজেলায় ইউএনওদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আনসার বাহিনীর একজন পিসি, একজন এপিসি ও আটজন সদস্যসহ মোট ১০জন করে সশস্ত্র নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করা হয়।