নাটোরে আবাসিক হোটেল কক্ষ থেকে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ বগুড়া থেকে নাটোরে এসে আত্মহত্যা করেছেন আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যবসায়ী।
রোববার (৩১ জানুয়ারি) বিকেলে নাটোর শহরের মাদ্রাসা মোড়ের মিল্লাত আবাসিক হোটেলের ৩০৮ নম্বর কক্ষ থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আনোয়ার হোসেন বগুড়া জেলার নন্দিগ্রাম থানার দক্ষিনপাড়া এলাকার এজাতুল্লার ছেলে এবং সে স্থানীয় রড সিমেন্টে ব্যবসায়ী।

মরদেহের পাশে থেকে একটি ডায়েরী উদ্ধার করা হয়। ডায়েরীতে লেখা রয়েছে আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। মৃত্যুর পর তার পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগের জন্য কয়েকটি মোবাইল ফোন নম্বর লেখা রয়েছে।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, আনোয়ার হোসেন ব্যবসা করার সময় বিভিন্নজনের কাছ থেকে বড় অংকের টাকা ঋন নেয়। পরে সেই ঋন পরিশোধ করতে না পেরে অবশেষে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেন তিনি। এরপর থেকে পাওনাদারের ভয়ে আনোয়ার হোসেন বাড়ী থেকে বের হয়ে বিভিন্ন স্থানে আত্বগোপন করে ছিলেন।

গতকাল শনিবার সে বাড়ীর লোকজনদের সাথে দেখা করে বাড়ী থেকে বের হয়ে নাটোরে এসে মিল্লাত নামে আবাসিক হোটেলের একটি কক্ষ ভাড়া নেয়। রাতের কোন এক সময় সে কক্ষের ভিতরে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে। সকাল থেকে সে ঘরের বাহিরে বের না হলে বিকেল ৫টার দিকে হোটেল বয় তাকে ডাকাডাকি শুরু করে।

এ সময় ঘরের ভিতর থেকে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে পুলিশ হোটেলে গিয়ে কক্ষের দরজা ভেঙ্গে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। মরদেহ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান।