নাটোরের সিংড়ায় হঠাৎ ঘুর্নিঝড়ের তান্ডব,৪০ ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের সিংড়ায় ঘুর্নিঝড়ের আঘাতে ৪০ কাঁচাপাকা ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ করে উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়নের দুর্গম লালুয়াপাঁচপাকিয়া গ্রামে ঘুর্নিঝড় আঘাত হানে।

ঘুর্নিঝড়ের আঘাতে দেয়াল সহ ২০ টি ঘর সম্পন্ন ধবসে পড়েছে এবং অবশিষ্ট বাড়ির টিনের চাল উড়ে গেছে। এছাড়া গাছপালা ভেঙ্গে পড়ে । তবে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। স্থানীয় সংসদ সদস্য আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের নির্দেশে বুধবার সকালে উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাসরিন বানু ও প্রতিমন্ত্রীর প্রতিনিধি উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন এবং স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন।

এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে তাৎক্ষনিকভাবে ত্রান সহায়তা হিসেবে চাল, ডাল সহ শুকনো খাবার বিতরন করেন। ঘুর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ সাজেদা বেগম,ফারুক হোসেন,সুলতান ও হিরক জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে হঠাৎ করেই ঘুর্নিঝড় আঘাত হানে। কয়েক মিনিটের তান্ডবে তাদের সহ গ্রামের প্রায় ২০টি বাড়ির টিন সহ দেওয়াল ধবসে পড়ে।

এছাড়া আরো অন্তত ২০ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এসব বাড়ি ঘরের টিনের সমস্ত চাল উড়ে গেছে। গাছ পালা ভেঙ্গে পড়েছে। এই ঘুর্নিঝড়ের তান্ডবের পর এসব পরিবারগুলোকে খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাতে হয়েছে। ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা জানান, মঙ্গলবার রাতে আচমকা ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সরেজমিন পরিদর্শন করে তালিকা প্রনয়ণ করা হচ্ছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন জানান, প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির নির্দেশনায় ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা সংগ্রহ করা হয়েছে। উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাসরিন বানু বলেন, ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে তাৎক্ষনিকভাবে চাল, ডালসহ শুকনো খাবার দেয়া হয়েছে। আরো সহায়তা প্রদানে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে তালিকা প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।