নাগরপুরে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রীর আত্নহত্যা

মতিউর রহমান, নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের নাগরপুর ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রীর আত্নহত্যার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার বিকালে নিজ বাড়িতে ঘরের ধনার সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্নহত্যা করে। সে উপজেলা সদর ইউনিয়নের কাশাদহ গ্রামের মো.মতিয়ার রহমানের কন্যা ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ঝুমা আক্তার (১২)। আত্নহত্যার বিষয়টি নিশ্চত করেন নাগরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (ওসি) তদন্ত মো. বাহালুল খান বাহার।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে ঝুমা তার নানা আ.ছালামের বাড়ী থেকে নিজ বাড়িতে আসে। ঝুমা তার মার কাছে পড়ার জন্য একটি শাড়ি চায়। মা তাকে শাড়ি দিতে অপরগতা প্রকাশ করে। ঝুমা তার মার সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যয়ে রাগ অভিমান করে নিজের রুমে চলে যায়।পরে মেয়ের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ঝুমার রুমে চলে এসে মেয়েকে ঝুলান্ত অবস্থায় দেখতে পায় মা। তার চিৎকার শোনে আশ পাশের লোকজন ছুটে আসে এবং মেয়েটি কে নামিয়ে দ্রুত নাগরপুর সদর হাসাপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার আকিব হোসেন তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ ব্যপারে নাগরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (ওসি) তদন্ত মো. বাহালুল খান বাহার জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠাই এবং নিহতর লাশ উদ্বার করি। ময়না তদন্তের জন্য শনিবার সকালে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসাপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে।