নরসিংদীর বেলাবতে নেশাখোরদের হামলায় ৬ জন আহত

আমজাদ হোসেন, নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি: নরসিংদীর বেলাবতে নেশাখোরদের হামলায় কলেজ ছাত্র ও এক শিশু সহ ৬ জন আহত হয়েছে। গুরুতনর আহত অবস্থায় কলেজ ছাত্র শফিকুল ইসলামকে বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও শিশু তামিমকে ঢাকা চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উপজেলার ঘোসলাকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অন্যান্য আহতদের মধ্যে একই গ্রামের খোকন মিয়ার স্ত্রী দিনা আক্তার(৩৩),শহিদ মিয়ার স্ত্রী খালেদা আক্তার(৩৫),মোঃ গোলাপ মিয়া(৫০) ও তার স্ত্রী গোলাপী বেগম(৪৫) প্রমূখ। এ ঘটনায় ঘোসালাকান্দা গ্রামের কাজল মিয়া ১৫ হামলা কারী মাদকসেবীর নামে বেলাব থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আহত কলেজ ছাত্র শরিফুল ইসলাম জানান,ঘোসলাকান্দা গ্রামের গোলাপ মিয়ার ছেলে শফিকুল ইসলাম সবি ও মারফত আলীর ছেলে শরিফ মিয়া প্রতিদিনই তাদের বাড়ির পাশে একটি জঙ্গলের আঁড়াল থেকে মাদক বিক্রি ও গাঁজা সেবন করে। ফলে প্রতিদিনই ঐ খানে অনেক নেশাখোরদের ভীড় জমে।

একারনে তাদেরকে পূর্বেও একাধিকবার নিষেধ করা হয়েছে কিন্তু তারা কোন কর্ণপাত করেনি। এদিকে এ ঘটনায় অতিষ্ট হয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে ঘোসালাকান্দা গ্রামের স্পোটিং ক্লাবের কিছু সদস্য ও এলাকার কিছু যুব সমাজ গাঁজা বিক্রি ও সেবনের সময় তাদেরকে ধাওয়া করেন। এ ঘটনার জের ধরে পরদিন সকালে মাদকাসক্ত শফিকুল ইসলাম সবি ও শরিফ মিয়ার নের্তৃত্বে প্রায় ৫০/৬০ জন লোক রাম দাঁ,বাঁশ সহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে কলেজ ছাত্র শরিফুল ইসলামের মাথা ফেটে যায়,শিশু তামিমের ডান চোখের নিচে ছুরি দিয়ে আঘাত করা সহ অন্যান্যদের লাঠি ও বাঁশ দিয়ে আঘাত করে আহত করে এবং দুলাল মিয়ার বাড়িঘর ভাংচুর করে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ সাফিউদ্দীন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,সব জায়গায় কিছু খারাপ মানুষ থাকে।

এখানেও খারাপ কিছু ছেলেরা এই হামলা ও মারপিট করেছে। তাদের বিচার হওয়া উচিত। বেলাব থানার ওসি মোঃ ফখরুদ্দীন ভূইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।