নববধূ ছাড়াই বাড়ি ফিরল বর

 রতন দাশ, সাতকানিয়া প্রতিনিধি: সপ্তম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীকে টেইলার্সে চাকরি করা ২৩ বছর বয়সী এক যুবকের সঙ্গে একসপ্তাহ আগেই কাবিননামা করে বিয়ে সম্পন্ন করে মেয়ের পিতা। সোমবার বর আসেন বধূকে তুলে নেওয়ার জন্য।

সঙ্গে বরপক্ষের লোকজনও। ওই কিশোরীকে বরের হাতে তুলে দেওয়া হবে এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন আনোয়ারা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর আহমেদ চৌধুরী। এ সময় বাল্যবিবাহ দেওয়ার অপরাধে মেয়ের বাবাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং মুচলেকা নিয়ে বিয়েও বন্ধ করে দেন তিনি।

সোমবার (১০ আগস্ট) বিকেলে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের আহমদ কবির মাস্টারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, একসপ্তাহ আগে উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের রায়পুর গাউছিয়া হাশেমীয়া মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে টেইলার্সে চাকরি করা এক যুবকের কাবিননামা সম্পন্ন করে বিয়ে দিয়ে দেন মেয়েটির পিতা।

সোমবার মেয়েটিকে বরের কাছে তুলে দেওয়ারও কথা। সে হিসেবে বরপক্ষের লোকজনও কনেকে নিয়ে যেতে আসেন। পরে ম্যাজিস্ট্রেট এসে বিয়েটি বন্ধ করে দেন এবং ১৮ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বাপের বাড়িতে রাখতে নির্দেশ দেন।

এ সময় মেয়ের পিতা বলেন, মেয়ে বিয়ের উপযুক্ত বয়স না হওয়ার আগে বরের কাছে তুলে দেব না। আমি ভুল করেছি মেয়েকে বাল্যবিবাহ দিয়ে। আনোয়ারা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর আহমেদ চৌধুরী বলেন, মেয়ের পিতা ভূয়া জন্মসনদ বানিয়ে মেয়েকে বিয়ে দেন।

আর এ কারণে তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে এবং মেয়ের পিতার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে বিয়ে বন্ধ করা হয় এছাড়া মেয়ের ১৮ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বাপের বাড়িতে রাখার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।