নন্দিত অভিনেত্রী শাবনূরের জন্মদিন আজ

নব্বই-পরবর্তী বাংলা চলচ্চিত্রের সফল নায়িকা শাবনূর। টানা দুই দশক ঢাকাই সিনেমার নায়িকা হিসেবে শীর্ষস্থান ধরে রাখেন এই সুদর্শনী। শাবনূরের পারিবারিক নাম কাজী শারমিন নাহিদ নুপুর। গুণী চলচ্চিত্র নির্মাতা এহতেশাম তার নাম বদলে রাখেন শাবনূর। চাঁদনী রাতে’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমের চলচ্চিত্রে অভিষেক ঢালিউডের জনপ্রিয় এই নায়িকার। আজ নন্দিত এ অভিনেত্রীর জন্মদিন। জীবনের এই বিশেষ দিনটিতে ভক্ত-অনুরাগীদের শুভেচ্ছায় ভাসছেন শাবনূর। সিনেমার সহকর্মীরাও এই দিনে সিনেমার প্রিয় মুখটিকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

নায়ক সালমান শাহের সঙ্গে জুটি বেঁধে একের পর এক দর্শকপ্রিয় ছবি উপহার দিয়েছেন। এই জুটির ১৪টি ছবি দর্শকরা দারুণভাবে গ্রহণ করেছিলেন। যার আবেদন আজও কমেনি। তাদের প্রথম ছবি ‘তুমি আমার’ ১৯৯৪ সালে মুক্তি পায়। পরিচালনা করেন জহিরুল হক। একই বছর শাহ আলম কিরণ তাদের নিয়ে ফারুক-কবরী জুটির ‘সুজন সখী’ চলচ্চিত্রের রঙিন পুনঃনির্মাণ ‘সুজন সখী’ নির্মাণ করেন। ১৯৯৫ সালে ‘স্বপ্নের ঠিকানা’, ১৯৯৬ সালে ‘স্বপ্নের পৃথিবী’, ‘তোমাকে চাই’, ১৯৯৭ সালে শিবলি সাদিক পরিচালিত ‘আনন্দ অশ্রু’ ছবিগুলো দারুণ সাড়া ফেলে।

সালমানের পর নায়ক রিয়াজের সঙ্গে জুটি বেঁধেও অসংখ্য ছবি উপহার দেন শাবনূর। এই নায়কের বিপরীতে ১৯৯৭ সালে ‘মন মানেনা’ ও ‘তুমি শুধু তুমি’ মুক্তি পায়। এরপর ১৯৯৯ সালে রিয়াজ-শাবনূর জুটির ‘ভালোবাসি তোমাকে’ ও ‘বিয়ের ফুল’ ব্যাপক ব্যবসা সফল হয়। বলা চলে সালমান শাহের পর রিয়াজ-শাবনূরই জুটি হিসেবে দর্শকের মনে আজো রাজত্ব করছে। স্নিগ্ধ চেহারা, মায়াবী হাসি, ডাগর ডাগর চোখ, বাঙালি নারীর মধুমাখা চাহনি আর প্রাণবন্ত অভিনয়ের মধ্য দিয়েই শাবনূর লাখো তরুণের হৃদয় জয় করেন। একটা সময় শাবনূরের সিনেমা মানেই হিট, শাবনূর মানেই বক্স অফিসে তোলপাড়। শাবনূর দীর্ঘ অভিনয় জীবনে কাজ করেছেন অমর নায়ক সালমান শাহ, ফেরদৌস, রিয়াজ, শাকিবসহ অনেক  সুপারস্টারদের সঙ্গে।

এই নায়িকা জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকাবস্থায় ২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর ব্যবসায়ী অনিক মাহমুদের সঙ্গে আংটি বদল করেন। ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর বিয়ে করেন তারা। এরপর মিডিয়াকে আড়াল করে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস শুরু করেন শাবনূর। ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর ছেলে সন্তানের মা হন তিনি। তার ছেলের নাম আইজান নিহান।

বর্তমানে অভিনয় থেকে দূরে রয়েছেন শাবনূর। তবে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তার উপস্থিতি দেখা যায়। বেশির ভাগ সময় অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করেন তিনি। সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন এই নায়িকা। আভাস দিচ্ছেন আবারও চলচ্চিত্রে ফেরার। সবকিছু ঠিক থাকলে হয়তো নতুন বছরেই ছবির শুটিং-এ অংশ নেবেন তিনি।