নদ-নদীর পানি কমলেও উন্নতি নেই বন্যা পরিস্থিতির

বেশিরভাগ নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করলেও, দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির তেমন উন্নতি হয়নি। খাবার, বিশুদ্ধ পানির সংকটে চরম দুর্ভোগে পানিবন্দি লাখ লাখ মানুষ।
কুড়িগ্রামে ব্রহ্মপুত্র ও ধরলার পানি কিছুটা কমলেও এখনও বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। চরাঞ্চলের কিছু ঘরবাড়ি থেকে পানি নেমে গেলেও নিচু এলাকার অনেক ঘরবাড়ি থেকে এখনও পানি সরেনি।

গাইবান্ধায় নদ-নদীর পানি কমলেও এখনও বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি। সুন্দরগঞ্জ, সদর, ফুলছড়ি, সাঘাটার চরাঞ্চল থেকে পানি নামতে শুরু করেছে।

সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীর পানি না বাড়ায় বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। এখনো নিম্নাঞ্চলে পানিবন্দি প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ। শরীয়তপুরে পদ্মা নদীর পানি কিছুটা কমলেও এখনও বাঁধে, পাকা সড়কে ও আশ্রয় কেন্দ্রে থাকা বেশিরভাগ মানুষ ঘরে ফিরতে পারেনি।

মুন্সিগঞ্জে বন্যার পানি কিছুটা কমার পাশাপাশি ভাঙনের ঝুঁকি বাড়ছে নদী তীরবর্তী এলাকায়। ছয়টি উপজেলার তিন শতাধিক গ্রাম থেকে এখনো নেমে যায়নি বন্যার পানি।

এদিকে আগামী সাত দিনের মধ্যে দেশের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে বলে জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।