নদীতে মাছ শিকারের অপেক্ষায় দশমিনার জেলেরা

সন্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা-বাউফল প্রতিনিধি।। পটুয়াখালীর দশমিনায় টানা ২২দিনের সরকারি নিষেধাজ্ঞা শেষে নদীতে মাছ শিকারে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন উপজেলার জেলেরা। সরকার ঘোষিত ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে ৪ নভেম্বর বুধবার রাত ১২টায়।

ট্রলার মেরামত, নতুন জাল তৈরী ও পুরানো জাল সেলাইসহ মাছ ধরার সকল প্রস্তুতি শেষ করে অপেক্ষায় আছে মৎস্যজীবীরা। জানা গেছে, মা ইলিশের বাধাঁহীন প্রজনন এবং সকল প্রজাতির মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২দিনের সকল প্রকার মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মৎস্য অধিদপ্তর।

আগামী ৪ নভেম্বর রাত ১২ টার পর পরই মৎস্য শিকারীরা নেমে পড়বেন জেলেরা। জেলে তাদের সকল প্রকার প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছেন। জেলেরা তাদের ট্রলার ও জাল মেরামতের পাশাপাশি ইঞ্জিণের কাজে শেষ সময়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

বাঁশবাড়িয়ার শাহ আলম খাঁসহ একাধীক জেলে বলেন, সরকার ঘোষিত ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা আমরা পালন করেছি। আমরা ইতোমধ্যে মাছ ধরার সকল প্রস্তুতি শেষ করেছি। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় অপেক্ষায় আছি। এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মাহাবুল আলম তালুকদার বলেন,

জেলেরা নিজেরাই অনেকটা সচেতন হয়েছেন। আমরা এ পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জেল ও জরিমানা আদায় এবং অবৈধ জাল জব্দ পুড়িয়ে ফেলেছি। তিনি আরও বলেন, আমরা দিনরাত মা ইলিশ রক্ষায় কাজ করেছি। আশা করছি আমরা এ বছর শতভাগ সফল হয়েছি। অবরোধ শেষে জেলেরা নদীতে মাছ শিকারের জন্য অপেক্ষা করছেন।