নওগাঁয় ট্রাক-ট্রলির সংঘর্ষে দুই ভাই নিহত

 আব্দুর রশীদ তারেক, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: নওগাঁর পত্নীতলায় ট্রাক-ট্রলির সংঘর্ষে দুই ভাইয়ের নিহত হয়েছে। শুক্রবার সকালে পত্নীতলা – সাপাহার সড়কের ঘড়াইল নামকস্থানে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন, চকমমিন গ্রামের মৃত এজাহার আলীর ছেলে মাহাবুব (৪২) এবং আনোয়ার হোসেন (৪০)। পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পরিমল কুমার জানান, দুই ভাই ট্রলিতে করে ধান নিয়ে বিক্রির উদ্দেশ্যে পার্শ্ববর্তী বাজারে যাচ্ছিলেন।

নওগাঁ থেকে সাপাহারগামী একটি ট্রাক পেছন থেকে তাদের ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। তবে ট্রাকটিকে আটক করা সম্ভব হয়নি। ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে, নওগাঁর রাণীনগরে রনজু মন্ডল (৪৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে রাতে বাড়িতে গিয়ে এলোপাথাড়ি ভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত রনজু মন্ডল উপজেলার রাতোয়াল গ্রামের আলহাজ্ব সুকবর আলীর ছেলে।

স্থানীয়রা ও পুলিশ জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে ১২ টায় বাড়ির রান্নাঘরের টিনের চালা কেটে ভেতরে প্রবেশ করে দৃর্বৃত্তরা, এরপর কৌশলে সাবমার্সিবল মটরের সুইচ অন করে দেয়। মটরের পানি পড়ার শব্দ শুনে বাড়ির মালিক রনজু মন্ডল সুইচ বন্ধ করার জন্য দরজা খুলে বাহিরে আসা মাত্র অতর্কিত ভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। এ সময় রনজু মন্ডলের স্ত্রী ও মেয়েরা এগিয়ে এলে তাদের লক্ষ্য করে হমলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে মারাত্মক আহত হয় নিহতের স্ত্রী দুলালী।

রনজু মন্ডলের বড় মেয়ে রুমি আক্তার (২২) জানান, আমরা রাতের খাবার খেয়ে ঘুমাতে যাই, রাত আনুমানিক সারে বারোটায় মটরের পানি পরার শব্দ শুনে বাবা বাহিরে এলে মুখোশধারী এক যুবক বাবাকে এলোপাথাড়ীভাবে কোপাতে থাকে। এতে আমরা এগিয়ে এলে আমার মা সহ আমাদেরকে আহত করে পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জহুরুল হক জানান, মধ্যরাতে বাড়িতে কেবা কারা ঢুকে রঞ্জুকে এলোপাথাড়ী কুপিয়ে পালিয়ে যায়। গুরুত্বর আহত অবস্থায় স্থানীয় স্বাস্থ-কমপ্লেক্সে নেয়া হলে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর ৫টায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় মামলা দায়ারের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান ওসি।