ধামরাইয়ে খাজীখালী নদীতে ঘাসের বোঝা নিয়ে সাতারে পারাপারে কৃষক নিখোঁজ

মোঃ আমিনুর রহমান, ধামরাই প্রতিনিধিঃ ঢাকার ধামরাইয়ে বালিয়া ইউনিয়নে গাজিখালী নদীতে ঘাসের বোঝা নিয়ে সাঁতরে পারাপারের সময় বাদল চন্দ্র মনিদাস নামে এক কৃষক পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

বুধবার (০১ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের রামরাবন গ্রামে গাজিখালী নদীতে নিখোঁজ হন ওই কৃষক। নিখোঁজ কৃষক বাদল চন্দ্র মনিদাস (৫৫) ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের রামরাবন গ্রামের মৃত নিমাই চন্দ্র মনিদাসের ছেলে। নিখোঁজের ছেলে সুকান্ত চন্দ্র মনিদাস জানান, প্রতিদিন গাজিখালী নদীর ওপার থেকে গরুর জন্য ঘাস কেটে নিয়ে আসেন তিনি।

কিন্তু আজ তার বাবা বাদল চন্দ্র মনিদাস ঘাস কাঁটতে নদীর ওপারে যান। পরে ঘাসের বোঝা নিয়ে সাঁতরে নদী পারাপারের সময় স্রোতের পানিতে তলিয়ে যান তিনি। পরে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ এসে নদীতে তার সন্ধান শুরু করে। ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার হুমায়ন কবির জানান, বিকেল প্রায় ৩টার দিকে ঘাসের বোঝা নিয়ে গাজিখালি নদীতে পারপারের সময় প্রবল স্রোতে ডুবে যান বাদল চন্দ্র দাস নামে ওই বৃদ্ধ কৃষক।

পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। একই সাথে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাট ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দলকে তলব করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে নদীতে প্রবল স্রোতের পাশাপাশি কচুরিপানার সংখ্যা বেশি থাকায় নিখোঁজ বাদল চন্দ্র দাসের এখনো সন্ধান পাওয়া যায়নি বলেও জানান তিনি।

এ সময় স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আহামদ হোসেন সহ অত্র এলাকার সকল মানুষ এক নজর দেখার জন্য খাজীখালী নদীর পাড়ে ভীড়। স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আহামদ হোসেন বলেন যে পর্যন্ত লাশ না পাওয়া যাবে সে পর্যন্ত উদ্ধার কাজ চলবে।