ধামরাইয়ে মোহাম্মদী গার্ডেনের মালিকানা সম্পত্তির জালিয়াতির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

মোঃ আমিনুর রহমান, ধামরাই প্রতিনিধি: ঢাকার ধামরাইয়ে স্বাক্ষর জাল করে মোহাম্মদীয়া গার্ডেন ও পিকনিক স্পটের জায়গা জমি ও বাড়ি আত্মসাতের চেষ্টার প্রতিবাদ ও দৃষ্ট্রান্তমূলক শস্তির দাবিতে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সহোদর ছোট দুই ভাই শেখ মোহাম্মদ আব্দুস শামীম ও শেখ মোহাম্মদ বুলবুল আহাম্মেদ।

বুধবার সকাল ১১টায় ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ধামরাই প্রতিনিধি মোঃ শামীম খান। প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও মোহনা টেলিভিশনের ধামরাই প্রতিনিধি মেহেদী ইমামজান কায়সারের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে মোহাম্মদীয়া গার্ডেন ও পিকনিক স্পটের ৭৫ভাগের স্বত্তাধিকারি শেখ মোহাম্মদ বুলবুল আহম্মেদ লিখিত বক্তব্যে বলেন,

আমরা তিন ভাই শেখ মোহাম্মদ আব্দুস সালাম ও শেখ মোহাম্মদ বুলবুল আহম্মেদ যৌথভাবে ধামরাই উপজেলার মহিষাশী এলাকাস্থ মোহাম্মদীয়া গার্ডেনের বৈধ মালিক। এরমধ্যে আমার মেজুভাই শেখ মোহাম্মদ আব্দুস শামীমের অংশ সাব কবলা রেজিষ্ট্রি দলীলমূলে বিক্রি করে নিঃস্বত্তবান হন। ফলে মহিষাশী, ধলকুন্ড ও উত্তর নওহাটা মৌজায় আমি এ প্রোপার্টির ৭৫ভাগ সম্পত্তির (৫১৯শতাংশ) মালিকানা অর্জন করি।

আমার সুচতুর বড়ভাই শেখ মোহাম্মদ আব্দুস সালাম জালজালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাৎ করতে আমাদের দুই ভাইয়ের স্বাক্ষর জাল করে রেজিষ্ট্রিবিহিন ভুয়া লিজ দলিল সৃজন করে আমাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করে। আমরা তার কঠোর বিচার দৃষ্ট্রান্তমূল শাস্তি দাবি করছি। এব্যাপারে শেখ আব্দুস সালাম তিনভাইয়ের মাণিকানার কথা স্বীকার করে বলেন,

আমি আত্মসাৎ করার কোন প্রকার চেষ্টা বা ফন্দি করিনি। মোহাম্মাদীয়া গার্ডেন ও পিকনিক স্পটের ব্যবসা পরিচালনা করিয়া আসছি অপর দুই ভাইয়ের সম্মতি সাপেক্ষে। চুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধির নিমিত্তে আমি আদালতে মামলা দায়ের করেছি।