ধান রাখার ডোলায় মিলল এক মৃত ও এক জীবিত নবজাতক

সিরাজগঞ্জে চুরি হওয়া দুই নবজাতককে একই বাসা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

তবে শনিবার চুরি হওয়া শিশু সামিউলকে জীবিত পাওয়া গেলেও ৪দিন আগে চুরি হওয়া অপর শিশু মাহিনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় চোর চক্রের ৫ নারীসহ ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ড থেকে বোরখা পরা এক নারী ২৩ দিন বয়সী শিশু মাহিমকে চুরি করে নিয়ে যায়।

অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই শনিবার দুপুরে জেলার উল্লাপাড়া উপজেলার হাটিকুমরুলের একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে চুরি হয় নবজাতক সামিউল।

ঘটনার পরে অভিযানে নামে পুলিশ। হাসপাতাল এবং মহাসড়কের আশপাশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সিসিটিভির ফুটেজ দেখে তদন্ত শুরু করে তারা।

ফুটেজে দেখা যায়, এক মহিলা শিশুটিকে নিয়ে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে ব্যাটারিচালিত অটোভ্যানে উঠে নলকার দিকে যায়।

পুলিশ ভ্যানচালককে আটক করে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সলঙ্গা থানার আলোকদিয়া গ্রাম অভিযান চালায়।

সেখানে একটি বাসার ধান রাখার ডোলা’র ভেতর থেকে নবজাতক শিশু সামিউল ও মাহিমকে উদ্ধার করা হয়।

তবে শিশু মাহিমকে পাওয়া যায় মৃত অবস্থায়। সদ্য ভূমিষ্ট শিশুকে ফিরে পেয়ে আনন্দিত সামিউল এর বাবা।

শিশু চুরির সাথে জড়িত ৫ জন মহিলা ও ১ জন পুরুষকে আটক করা হয়েছে।