দ্বিতীয় দিনের সকালেই সাকিব-লিটনের উইকে পতন

চট্টগ্রামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের ১ম টেস্টের ১ম দিনশেষে নিজেদের ব্যাটিং নিয়ে সন্তুষ্ট ছিল বাংলাদেশ। দু-একটি উইকেট বেশি পড়ে গেলেও সাকিব-লিটনের ওপর পূর্ণ আস্থা রেখেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। শেষ বিকেলে কোন বিপর্যয় না ঘটিয়ে তারা ৫ উইকেটে ২৪২ রান নিয়ে দিন শেষ করেছিলেন। তাই দ্বিতীয় দিনে রানটা আরও বেশি হবে বলে আশা ছিল সবার।

কিন্তু দ্বিতীয় দিনের সকালেই খেই হারিয়ে ফেললেন সাকিব-লিটন। খেলা শুরুর পর দলে মাত্র ৬ রান যোগ করেই বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন লিটন। জোমেল ওয়ারিক্যানের করা বলটি ব্যাক ফুটে খেলতে গিয়ে ব্যক্তিগত ৩৮ রানে বোল্ড হন তিনি। লিটন আউট হওয়ার পর ক্রিজে এসেছেন মেহেদি হাসান মিরাজ। সাকিবকে ভালই সঙ্গ দিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু আস্থার সেই প্রতিদান যে সাকিবও বেশিক্ষণ দিতে পারলেন না। ফিফটি তোলার পর ব্যক্তিগত ৬৮ রান তুলে খুব অপ্রত্যাশিতভাবেই বিদায় নিলেন তিনি।

কর্নওয়েলের যে বলটি সাকিব খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন সেটি অতিরিক্ত বাউন্স ছিল। অফ স্টাম্পের বাইরে থাকা বলটি কাট করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাটে লেগে তা উড়ে গিয়ে ধরা পরল ক্যারিবীয় অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাফেটের হাতে। এতেই শেষ হয়ে গেল একটি বড় ইনিংসের সম্ভাবনা। এই প্রতিবেদেন লেখা পর্যন্ত ১২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৩২৮। মিরাজ ব্যাট করছেন ৪৬ রানে, তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে আছেন তাইজুল ইসলাম।

এর আগে গতকাল টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশের শুরুটা ভালো হয়নি। ইনিংসের ৫ম ওভারে কেমার রোচের করা তৃতীয় বলে বোল্ড হয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল। আউট হওয়ার আগে নামের পাশে ১৫ বলে ৯ রান করেন তামিম। এরপর ৫৮ বলে ২৫ রান করেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ফেরেন দলীয় ৬৬ রানে। তারপর অধিনায়ক মুমিনুল ব্যক্তিগত ২৬ ও দলীয় ১১৯ রানে ফেরেন।

এদিন দুর্দান্ত ব্যাট করছিলেন তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলাম। দীর্ঘবিরতির পর টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নামলেও কোন জড়তা ছিল না তার মাঝে। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি তুলে সাদমান ফেরেন ৫৯ রান করে। আর মুশফিক করেন ৩৮ রান। সাদমান দলীয় ১৩৪ আর মুশফিক দলীয় ১৯১ রানে ফিরলে শেষ বিকেলটা নির্বিঘ্নেই কাটিয়ে দেন সাকিব-লিটন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে স্পিনার জোমেল ওয়ারিকেন প্রথমদিন তুলে নেন তিন উইকেট।

ব্যাটিংয়ের জন্য এত ভালো উইকেট পাওয়ার পরও অন্য ব্যাটসম্যানদের আত্মহত্যার মিছিল ছিল দৃষ্টিকটু। বিশেষ করে সেট হওয়ার পরও অধিনায়ক মুমিনুলের আউট নিয়ে সমালোচনা চলছে।

এদিকে নিজেদের বোলিং পারফরম্যান্সে খুশি উইন্ডিজরা। দলীয় পরিকল্পনা কাজে আসায়, উচ্ছ্বসিত জোমেল ওয়ারিকান। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে এখন দ্রুত উইকেট তুলে নিতে চান তারা।

জোমেল ওয়ারিকান বলেন, আমার বোলিং আজ খুব ভালো হয়েছে। তিন উইকেটের দুটিই ছিলো খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের বোলাররা সঠিক জায়গায় বল করতে পেরেছে। তবে, কাল আমাদের দায়িত্ব আরো বেশি। দ্রুত অলআউট করতে হবে বাংলাদেশকে। রান যত কম হবে, ততই আমাদের জন্য ভালো।

এদিকে উইকেটে টার্ন থাকায় বাংলাদেশি স্পিনারদের সামলাতে যে কষ্ট হবে, ওয়ারিকান সেটাও মনে করিয়ে দিয়েছেন সতীর্থদের।