দৌলতপুরে ক্রয় বিক্রয় নিয়ে মারামারি

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে আড়ীয়া ইউনিয়নে বাঁকী ক্রয় বিক্রয় নিয়ে দোকানদার কাস্টমার মারামারি হয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী।

কাস্টমার ইয়ামিন এর পরিবারের লোকজন দাবি করেন শুক্রবার সন্ধ্যার আগে ইয়ামিন বড়গাংদিয়া মোড়ে মন্ডল ফার্মেসীতে ঔষধ আনতে যায়।

সেখানে ইয়ামিন ১২৫০ টাকার ঔষধ ক্রয় করে। কিন্তু ১ হাজার টাকা ইয়ামিন এর কাছে ছিল ফার্মেসীর মালিক কে ইয়ামিন বলেন ১ হাজার রেখে ঔষধ গুলো দেন আমি পরে বাঁকী টাকাটা দিয়ে দিব।

বাঁকী না দিয়ে ফার্মেসীর মালিক ইয়ামিনকে কুটউক্তি মুলক কথা বার্তা বলে ইয়ামিন প্রতিবাদ করলে তাকে একাপেয়ে ফার্মেসীতে থাকা সকলে মিলে মারপিত করে।

আত্মরক্ষায় ইয়ামিন ফার্মেসীর মালিক কে দুই একটি কিল ঘুষি মারে। পরে অনঅধিকার প্রবেশ করে দোকানে ভাঙ্গচুর ও মারামারি অভিযোগ

এনে থানায় অভিযোগ দিলে ইয়ামিনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে পুলিশ।

তারা আর জানান,ইয়ামিনকে মারধর করা নিয়ে আমরা একটি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি এবং যে ফার্মেসীতে মারামারি হয়েছে

সেখানে সি সি ক্যামেরা আছে ফুটেজ দেখলে বোঝা যাবে কে আগে মারা শুরু করেছে। তাই তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে ফার্মেসীর মালিক দাবি করেন ইয়ামিনকে বাঁকী না দেওয়াতে সে ফার্মেসীতে ঢুকে হুমকি দিতে থাকে

এক পর্যায়ে ফার্মেসীতে থাকা লোকজন কে মারপিট ও ভাঙ্গচুর করে পালিয়ে যায় যা সি সি টিভি ফুটেজে রেকড আছে।

আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ করলে থানাপুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। এবং আমাদের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা মিথ্যা।

এ বিষয়ে দৌলতপুর থানা অফিসার ইনচার্জ জহুরুল আলম জানান, এ বিষয়ে একজন কে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বাঁকী বিষয় গুলো তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।