দুদকের তলবে হাজির হননি সম্রাটের স্ত্রী ও ভাই

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) তলব করলেও হাজির হননি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাঈল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটের স্ত্রী শারমিন চৌধুরী ও ভাই রফিক।

আজ সোমবার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য তলব করে ৭ জানুয়ারি তাঁদের চিঠি দেওয়া হয়েছিল।
এর আগে গতকাল রোববার সকালে যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার, ভাই মাসুদ মাহমুদ ভূঁইয়া ও আরেক ভাই হাসান মাহমুদের স্ত্রী মনসুরা ইয়াসমিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক।

উল্লেখ্য,  গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর ৬ অক্টোবর গ্রেপ্তার হন সম্রাট। সহযোগী আরমানসহ সম্রাটকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। বন্য প্রাণীর চামড়া রাখার অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ছয় মাসের কারাদণ্ডের পাশাপাশি সম্রাটের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলা হয়। মাদক পাওয়ায় আরমানকেও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ১২ নভেম্বর সম্রাটের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।