দুই মুখওয়ালা গো বাছুর, এলাকায় চাঞ্চল্য!!

রাজিব হোসেন রাজন, শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শরীয়তপুর সদর উপজেলার মজুমদারকান্দি গ্রামে একটি গাভী দুই মুখওয়ালা বাছুর জন্ম দিয়েছে। গত বুধবার বাছুরটি জন্ম নেয়। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। বাছুরটি এখন পর্যন্ত সুস্থ রয়েছে এবং মায়ের দুধ পান করছে।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় ও স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে শংকর জাতের ঐ গাভীটি ৯ মাস আগে গর্ভধারণ করে। ২৬ আগষ্ট বুধবার গাভীটি প্রাকৃতিকভাবেই সাদাকালো রংয়ের একটি ফ্রিজিয়ান জাতের বাছুর জন্ম দেয়। জন্ম নেয়ার পর দেখা যায়, বাছুরের দুইটি মুখ রয়েছে। তবে মুখ দুইটি হলেও কান ও চোখ দুইটি করেই। বাছুরটির সব অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সচল রয়েছে। বাছুরটি দাঁড়াতে পারে এবং হাঁটতেও পারে। বাছুরটি স্বাভাবিক নিয়মে মায়ের দুধও পান করতে পারে। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। আশেপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে কৌতুহলী মানুষ বাছুরটি দেখতে আসছে।

সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের ফারুক সরদার ও উজ্জ্বল সরদার বলেন, দুই মুখওয়ালা বাছুরের কথা শুনে আমরা দেখতে এসেছি। এ রকম আশ্চর্য ঘটনা আমরা আগে কখনো দেখিনি।

গাভীটির মালিক আজাহার সরদার বলেন, গাভীটি স্বাভাবিকভাবেই বাচ্চা দিয়েছে। বাচ্চাটি দুধ খেতে পারছে। প্রতিদিন গাভী থেকে ৭ থেকে ৮ কেজি দুধ পাওয়া যাচ্ছে। তিন দিন হলেও এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা দেখা দেয়নি।

সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ তরুন কুমার রায় জানান, দুইটি মুখ নিয়ে জন্ম নেয়া বাছুর সম্পর্কে আমরা অবহিত রয়েছি। জিনগত ত্রুটির কারণে এমন হতে পারে। তবে বিগত দিনের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে এ ধরণের বাছুর বেশি দিন জীবিত থাকে না। তারপরেও বাছুরটি এখন পর্যন্ত সুস্থ থাকায় আমরা নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি।