দিনাজপুরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধুকে এসিড নিক্ষেপ আটক ২

দিনাজপুরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধুকে এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় দেবর ও ননদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনার মুল হোতা পাষন্ড স্বামী তানভীরুল রহমান রাহুল (২৬) পলাতক । কোতয়ালী থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন দেবর ও ননদকে আটকের সংবাদ নিশ্চিত করেছেন ।

আটককৃতরা হলেন- দিনাজপুর পৌর এলাকার মামুনের মোড়স্থ মিজানুর রহমানের ছেলে রাজ (২০) ও মেয়ে ময়ুরী বেগম (৩০)।

জানা যায়, দিনাজপুরের সুইহারী মাঝাডাঙ্গা গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের মেয়ে রিয়া বেগমের সাথে গত ৪ বছর আগে দিনাজপুর পৌর এলাকার মামুনের মোড়স্থ মিজানুর রহমানের ছেলে তানভীরুল রহমান রাহুল (২৬) এর সাথে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক প্রদান করা হলেও বিয়ের কিছু দিন পর থেকে আরোও দুই লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য গৃহবধ রিয়ার উপর চাপ দিতে থাকে স্বামীর পরিবার।

গত এক মাস আগে যৌতুকের দাবি করায় গৃহবধু রিয়া বেগম বাবার বাড়ীতে চলে যায় এবং সেখানেই বসবাস করছিল। শনিবার দিবাগত রাতে দিনাজপুরের বানিজ্য মেলা থেকে গৃহবধু রিয়া বেগম ও তার মা এবং ভাবী মিলে অটো রিকশা যোগে নিজ বাড়ী সুইহারী মাঝাডাঙ্গা যাওয়ার পথে হিরাহার পাকা রাস্তার উপর অটো রিকশা থামিয়ে গৃহবধু রিয়ার স্বামী তানভীর রহমান রাহুলসহ আরোও ৬জন গৃহবধু রিয়ার মা ও ভাবী কে অটো রিকশা থেকে নামিয়ে বেদম পিটিয়ে আহত করে। এই ঘটনায় অটো রিকশা থাকা গৃহবধু রিয়া বেগম এগিয়ে আসলে তার স্বামী রাহুল ও তার সাথে আরোও ৬ মিলে গৃহবধূকে এসিড নিক্ষেপ করে । এতে করে গৃহবধু রিয়া বেগমের পিঠের দিকে পুড়ে যায়। বর্তমানে গৃহবধু দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছে ।

কোতয়ালী থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই অভিযান চালিয়ে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গৃহবধুর শরীরের প্রায় ১২ থেকে ১৫ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাকে হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আটক আসামীদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।