দিনাজপুরে নারীর সাথে অসামাজিক কার্যকলাপ ও মাদক সেবনের দায়ে প্যানেল চেয়ারম্যানসহ আটক ৬

মোঃ নাজমুল ইসলাম নয়ন, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ নারী এবং মদ নিয়ে দিনাজপুর জেলা পরিষদের ডাকবাংলোতে ফুর্তি ও অসামাজিক কার্যকলাপ করার দায়ে জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সদস্য এবং ইউপি সদস্যসহ ৬ জনকে আটক করেছে দিনাজপুর কোতয়ালি থানা পুলিশ।

আটককৃতরা পুরুষ হলেন-দিনাজপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও পার্বতীপুর উপজেলার নতুনবাজার এলাকার মৃত. দেলোয়ার হোসেনের ছেলে সফিকুর রায়হান (৪৮), জেলা পরিষদের সদস্য ও চিরিরবন্দর উপজেলার থানাপাড়া এলাকার জামাল উদ্দিন সরকারের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার(৪৬), চিরিরবন্দর উপজেলার ৭নং আউলিয়াপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও মহাদানী গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে মহির উদ্দিন কাশেম (৩৩) এবং চিরিরবন্দর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের আব্দুল মজিদ সরকারের ছেলে জাহেদুল সরকার (৩৬)।

আটক দুই নারী হলেন-সদর উপজেলার গোপালগঞ্জ এলাকার সোহেল রানার স্ত্রী সাথী ওরফে বন্না (২৬) এবং নয়নপুর এলাকার সাগর হোসেনের স্ত্রী রিনিতা আক্তার ওরফে ঈশিতা (২১)।

পুলিশ জানান, রাতে জেলা পরিষদের ডাক বাংলোতে অসামাজিক কার্যকলাপ ও মাদক সেবনের খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় ডাক বাংলোর দ্বিতীয় তলার একটি রুম থেকে মদ, মাদক সেবনের উপকরণ, ২ জন নারী ও ৪ জন পুরুষকে আটক করা হয়। পরে তাদেরকে কোতয়ালি থানায় নিয়ে আসা হয়। অভিযান পরিচালনা কলে আটককৃতদের কাছ থেকে একটি মদের বোতলে ৫০০ মিলি ও অপর একটি মদের বোতলে ৩০০ মিলি তরল মাদক এবং ৫টি খালি মদের বোতল, কিছু রাং পাতা, সাদা কাগজ দিয়ে মোড়ানো ইয়াবা ট্যাবলেট সেবনের ১০টি পাইপ এবং ৭টি গ্যাস লাইট পাওয়া গেছে।

এই ঘটনায় কোতয়ালি থানার এসআই জাহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মাদক সেবন ও নারীদের নিয়ে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

দিনাজপুর কোতয়ালি থানার (ওসি তদন্ত) মোঃ বজলুর রশিদ দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি নয়ন কে জানান , “আটক ২ নারী এবং ৪ পুরুষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আসামীদেরকে আজ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।