দিনাজপুরে অধিকাংশ সড়ক এখন চাতাল , বেরেই চলেছে পথচারিদের সড়ক দূর্ঘটনা

মোঃ নাজমুল ইসলাম নয়ন, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি: দিনাজপুরের সদর উপজেলা সহ বিভিন্ন উপজেলার অধিকাংশ সড়ক ও উপ-সড়ক গুলো এখন ধান-খড়সহ মৌসুমী ফসল শুকানোর চাতালে পরিণত হয়েছে। ফলে প্রতি নিয়ত বেরেই চলেছে পথচারিদের সড়ক দূর্ঘটনা।

সরেজমিনে বিভিন্ন উপজেলা ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার অধিকাংশ সড়ক ও উপ-সড়ক গুলোতে ধান-খড়,ভুট্টাসহ মৌসুমী ফসল শুকানো হচ্ছে এতে চাষীরা উপকৃত হলেও বিপাকে পড়ছে চলাচলকারীরা কেননা ধানের খড় ও ভুট্টা অতি পিচ্ছিল সামান্য কারণে যানবাহন পিছলে গিয়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা যা সাধারণ মানুষ সহ রাষ্ট্রের অপুরোনীয় ক্ষতির মূল কারন। ধানের খড়ের উপর ব্রেক করলে যেকোন ধরনের যানবাহনের ব্রেক অকেজো হয়ে যায়।

এই সমস্যা আরও তীব্রতর হওয়ায় মোটরসাইকেল, ভ্যান ও সাইকেল চালকদের পক্ষে যানবাহন চালানো কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়েছে। এদিকে রাস্তায় ফসল মাড়াই এবং শুকানোর কাজে নিয়োজিত কৃষকদের সাথে কথা হলে তারা জানান, বাড়িতে জায়গা না থাকায় বাধ্য হয়ে সড়কে ফসল মাড়াই ও শুকানো কাজ করছেন। গম্প্রতি সড়ক দূর্ঘটনায় আহত ও নিহ দের পরিবারের সদস্যরা জানান, নিজে যতই সাবধান থাকি আশেপাশের মানুষ যদি সাবধান না থাকে তাহলে বিপদ হবেই।

চলাচল ও সড়ক দূর্ঘটনা কমাতে সড়ক ও উপ-সড়ক গুলোতে খড় শুকানো বন্ধ ও সড়ক ও উপ-সড়ক ভাঙ্গাগুলো দ্রুত সংস্কার করা প্রয়োজন। দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস,এইচ,এম মাকফুরুল হাসান আব্বাসী দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি নয়ন কে জানান ,সাধারণ মানুষের সড়ক ও উপ-সড়ক দিয়ে চলাচলে অসুবিধে বা সড়ক গুলোর ক্ষতির অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন করবো । পাশাপাশি সড়ক ও উপ-সড়ক দিয়ে মানুষের চলাচলে অসুবিধে হয় এমন কাজ থেকে সকলেকে বিরত থাকতেও বলেন ।