দশমিনায় বিদ্যালয় মাঠে কাঁচাবাজার

সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা-বাউফল প্রতিনিধি: করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে ও জনসমাগম এড়াতে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে সোমবার সকালে পাইকারি ও খুচরা কাঁচাবাজার পটুয়াখালীর দশমিনা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে স্থানান্তর করা হয়। কাঁচাবাজার স্থানান্তরের প্রথমদিনর সকালে সরেজমিনে গিয়ে ক্রেতাদের উপস্থিতি ও জনসমাগ কমলক্ষ্য করা গেছে। কোন দোকানেই ক্রেতার ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি। ক্রেতার উপস্থিতি কম থাকায় স্বাচ্ছন্দে কেনাকাটা করেছেন সবাই। তবে কোন কোন বিক্রেতা বিক্রি কম বলে জানিয়েছেন। স্কুল মাঠে পাইকারী ও খুচরা কাঁচাবাজারের তেমন ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি। ফলে অনেকটা স্বাচ্ছন্দেই কেনাকাটা করেছেন পাইকারী ও খুচরা ক্রেতারা। এদিকে মুদির দোকান, ডিম, মুরগি, মাছ ও মাংসের দোকানসহ অন্যান্য দোকান পূর্বেস্থানেই রয়েছে। ডিম ও মাংসের দোকানে ক্রেতার উপস্তিতি কম থাকলেও মুদির দোকান ও মাছের দোকানে ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে মাছ বাজারে ও মুদির দোকানে প্রচুর ভিড় ছিল। এসব দোকানে ক্রেতা বিক্রেতা সবাইকে সামাজিক দুরত্ব লংঘন করে কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। স্কুল মাঠে সবজি কিনতে আসা মোঃ মিজানুর রহমান হাওলাদার, এইচ.এম.ফোরকান ও সাঈদুর রহমানসহ কয়েক ক্রেতা জানান, শাক-সবজি কিনতে পারলেও মাছ মাংসসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ক্রয় করতে আমাদেরকে আবারো বাজারের মধ্যে যেতে হবে। তবে মাছ মাংসের দোকানও যদি স্কুল মাঠে স্থানান্তর করা হইতো তাহলে আমাদের দুই জায়গায় যেতে হবে না। উল্লেখ্য, উপজেলা প্রশাসনের পরবর্তি নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত সোমবার (১৩এপ্রিল) থেকে পাইকারি কাঁচাবাজার ও খুচরা কাঁচাবাজার মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুলমাঠে স্থানান্তরের নির্দেশ দেয়া হয়। উপজেলা আ”লীগের সাধারন সম্পাদক ও দশমিনা সদর ইউপি চেয়ারম্যান এবং বর্নিক সমিতির সভাপতি এ্যাড. ইকবাল মাহামুদ লিটন বলেন,করোনা মোকাবেলায় সামাজিক দুরুত্ব নিশ্চিতকল্পে আমরা বিদ্যালয়ের মাঠে কাচাঁবাজার স্থানান্তর করেছি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ তানিয়া ফেরদৌস বলেন, করোনা মোকাবেলায় সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতের লক্ষে জনসমাগ এরাতে এমন সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।