দশমিনায় কৃষকের ধান কেটে দিল ছাত্রলীগ

সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা-বাউফল প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নে কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছে উপজেলা ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগ। প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনায় এ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে বলে জানান ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত কৃষকের পাকা ধান কেটে দেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের মোঃইব্রাহীম মৃধার ৭৮শতাংশ জমির ধান আবাদ করেছেন, যা বৈশাখের প্রথম থেকে কাটা শুরু হয়েছে। গ্রামের পরিবারগুলোর অধিকাংশই কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। অন্যদিকে এখন ঝড়-বন্যার পূর্বাভাসও রয়েছে। দেশে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির কারণে শ্রমিকের সংকট থাকায় ধান কাটতে বেশ সমস্যায় পড়ে যান কৃষকেরা ।

কৃষকদের সমস্যার খবর পেয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক হাসান সেরেনিয়াবাদ নেতৃত্বে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা কৃষকের জমির পাকা ধান কেটে দেওয়ার উদ্যোগ নেন। পরে নেতা-কর্মীরা রোববার সকাল-দুপুর প্রযন্ত একত্র হয়ে ধান কেটে কৃষকের বাড়িতে পৌঁছে দিতে সাহায্য করেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক হাসান সেরেনিয়াবাদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের কৃষকদের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় কেন্দ্রীয়, জেলা ও উপজেলা ছাত্রলীগের নির্দেশে উপজেলার কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছি আমরা।

তিনি আরও জানান, বহরমপুর ইউনিয়নের এ কৃষকের ৭৮শতাংশ জমির ধান কেটে তাঁর ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে আর কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. বনি আমিন খান বলেন, এরই মধ্যে উপজেলার অনেক ধান কাটে ঘরে নিয়েছে উপজেলার কৃষক। আগাম বন্যার আশঙ্কা থাকায় কৃষকদের ধান দ্রুত কেটে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

র‌্যাবের অভিযানে দশমিনায় ৪৫কেজি কারেন্ট জালসহ আটক-১ দশমিনা-বাউল প্রতিনিধি।। পটুয়াখালী র‌্যাব-৮ ক্যাম্পের একটি বিশেষ দল কোম্পানী অধিনায়ক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রইছ উদ্দিনের নেতৃত্বে পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের লঞ্চঘাট এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে সরকারি নিষিদ্ধ ৪৫কেজি কারেন্ট জালসহ মোঃ সোহেল গাজী (২৬)কে আটক করেছে। রোববার বিকাল ৩টায়।

এ সময় আরেক কারেন্ট জাল ব্যবসায়ী বাঁশবাড়িয়া গ্রামের আলাউদ্দিন মৃধা’র ছেলে মোঃ মহাসিন মৃধা কৌশলে পালিয়ে যায়। নাম প্রকাশ না করা শর্তে এলাকাবাসী জানান, আটককৃতসহ উভয় ব্যাক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ অত্যন্ত সুকৌশলে এলাকায় সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল মজুদ করে বিক্রি করে আসছে। আটককৃতকে জব্দকৃত কারেন্ট জালসহ দশমিনা থানায় হস্তান্তর করা হয়। র‌্যাব-৮ এর কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রইছ উদ্দিন বাদি হয়ে দশমিনা থানায় মৎস্য সংরক্ষন আইনে একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেন। এ সংক্রান্তে র‌্যাব বাদি হয়ে দশমিনা থানায় মৎস্য সংরক্ষন আইনে একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেছেন।