থার্টি ফার্স্ট নাইটে পিকনিকের নামে অসামাজিক কার্যকলাপে আটক ৮

থার্টি ফার্স্ট নাইটে পিকনিকের নামে অসামাজিক কার্যকলাপ আর মাদকসেবনের আসর বসেছিল রাজশাহী মহানগরীর একটি বাড়িতে।

পুলিশ সেখান থেকে আওয়ামী লীগের এক নেতাসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এদের মধ্যে তিনজন তরুণী। বাড়িটি থেকে মদ ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার আওয়ামী লীগ নেতার নাম মেহেদী হাসান রনি (৩২)। তিনি রাজশাহী নগরীর ২৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

গ্রেপ্তার অন্যরা হলেন, রুমেল (৩৫), মনিরুল হক (৩৬), রিপন আলী (৩২), পিয়াল মাহমুদ (২২), আলেয়া রহমান (১৯), আজমিরি খাতুন (২০)  ও মাহি আক্তার স্মৃতি (২০)। নগরীর পঞ্চবটি এলাকায় রুমেলের বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।নগরীর বিভিন্ন এলাকায় তাদের বাড়ি।

অভিযানের সময় বাড়িটি থেকে দুই বোতল বিদেশি মদ, দুই বোতল দেশি মদ, ১৩ পিস ইয়াবা বড়ি এবং মাদকসেবনের নানা উপকরণ জব্দ করেছে। নগরীর বোয়ালিয়া থানা পুলিশের একটি দল গেল মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে এ অভিযান চালায়।অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইফতেখার মো. আল-আমিন।

তিনি জানান, বাড়িটিতে পিকনিকের নামে মাদকসেবনের আসর বসেছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক তদন্তে তারা জানতে পেরেছেন, গ্রেপ্তার তিন তরুণী যৌনকর্মী। গ্রেপ্তার সবাইকে আসামি করে রাতেই থানায় মামলা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।