তিন বাংলাদেশী এখন আমিরাতে কমিউনিটির প্রথম সারিতে !

মাহাবুব হাসান হৃদয়, সংযুক্ত আরব আমিরাত: করোনা ভাইরাস মহামারিতে অসহায় কর্মহীন গৃহবন্দীদের পার্শে দাঁড়ালেন দুবাই এর তিন ব্যবসায়ীনেতা বেশকিছুদিন ধরে দুবাইতে বাংলাদেশ বিজনেস এসোসিয়েশনের সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জুলফিকার ওসমান, সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইয়াকুব সৈনিক ও সিনিয়ার সহ সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ, বিভিন্ন ভাবে কর্ম ও অর্থহীন গৃহবন্দী প্রবাসীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করার পর এইবার পবিত্র রমজানে গত ২৭/২৮/২৯ এপ্রিলে পঞ্চাশ হাজার দেরহাম বাংলাদেশী প্রায় বারোলক্ষ টাকার নগদ অর্থ সহযোগীতা প্রদান করে আমিরাতে বাংলাদেশি কমিউটির মাঝে প্রথম সারিতে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

তাদের এই সহযোগিতা ক্ষতিগ্রস্থ দের জন্য এক অনন্য রকমের সহযোগিতা বলে মনে করেন ভুক্তভুগীরা।সাংবাদিকরা এই কঠিন সময় মানুষের পাশ্বে দাঁড়ানো সম্পর্কে জানতে চাইলে জনাব আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইয়াকুব সৈনিক বলেন; আসলে আমরা সকলেই এখন একটি কঠিন সময় অতিবাহিত করছি।আর এইখানে আমরা প্রবাসে যাদের সামর্থ আছে তারা যদি আমাদেরই প্রবাসীদের বিপদে এগিয়ে না আসি তাহলে নিজেকে অপরাধী মনে হবে আর তারাও বা কোথায় যাবে।

ইসলাম আমাদের শিক্ষাদেয় মানুষের বিপদে বা কল্যানে এগিয়ে যেতে তাই যতটুকু সম্ভব আমাদের অবস্থান থেকে আমিরাতে করোনা ভাইরাস মহামারিতে যারা কর্মহীন হয়ে পড়েছে তাদের পাশে দাঁড়াবার চেষ্টা করেছি।এই ছাড়াও দুবাই নিয়েজিত বাংলাদেশের মান্যবার কন্স্যাল জেনারেল মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন খান,মাননীয় কমার্শিয়াল কাউন্সিলার কামরুল হাসান,মাননীয়া লেবার কাউন্সিলার ফাতেমা জাহান ও মাননীয় প্রথম সচিব (শ্রম) ফকির মনোয়ার ইসলাম এর বিশেষ অনুরোধে এই নগদ অর্থ প্রদানে উৎসাহিত হয়।

তাই ব্যক্তিগত খাদ্য সামগ্রী বিতরণের পর আমাদের প্রাণপ্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ বিজনেস এসোসিয়েশন দুবাই আল আবির এর পক্ষ থেকে করোনা মহামারীতে কর্মহীন হয়ে অর্থ সংকটে থাকা দিন মজুরদের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান করি।আমরা এইসব নগদ অর্থ গুলি প্রদান করি দুবাই, শারজাহ ও আজমান অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় যেমন: শারজাহ এর বিএম ডাব্লিউ, আবুসাগারা, দুবাই এর আল নাখিল, আল মাতিনা, আল খুঁজ, সোনাপুর ও ইন্টারনেশন্যাল সিটি সহ আজমিনের বেশ কিছু স্থানে।

আমি মনেকরি বর্তমানের এই মুহূর্তে যাদের সামর্থ আছে তারা এই সময় আমাদের এইসব প্রবাসী ভাইদের পাশে এগিয়েআসা উচিত বলে মনেকরি।